খেলাধুলা

রোজা রেখে ফাইনাল খেলবে দুই দলের ৫ জন খেলোয়াড়

আগামী ২৬শে জুন মাঠে গরাবে চ্যাম্পিয়নস লীগের ফাইনাল ম্যাচ। সেই ম্যাচে লিভারপুলের মুখোমুখি হবে রিয়াল মাদ্রিদ। সেই ম্যাচে মাদ্রিদের কাছে যতোটুকু না গূরত্বপূর্ন, বরঞ্চ তার চেয়ে বেশি গূরত্বপূর্ন লিভারপুলের কাছে। কেননা ১৩ বছর আগে এই চ্যাম্পিয়ন্স লীগ জিতেছে লিভারপুল।

শেষ ফাইনালেই খেলা হয়েছে ১১ বছর আগে। আর লিভারপুলের এই সাফল্যের পিছনে যার সবচেয়ে বেশি অবদান তিনি হচ্ছেন মোহাম্মদ সালাহ। তবে চ্যাম্পিয়নস লীগের ফাইনালের দিন যে রোজা থাকবে। শোনা যাচ্ছে রোজা রেখেই মাঠে নামবেন সালাহ।

শুধু সালাহ নয়, লিভারপুলের আরও দুই গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় সাদিও মানে ও মিডফিল্ডার এমেরে কান ধর্মপরায়ণ মুসলিম। রিয়ালের স্কোয়াডেও মুসলিম আছেন দুজন। করিম বেনজেমা আর আশরাফ হাকিমি। হাকিমির একাদশে থাকার সম্ভাবনা কম। সেমিফাইনালের ফিরতি লেগে জোড়া গোলের পর বেনজেমাকে বসিয়ে রাখার প্রশ্নই আসে না। বেনজেমাও নামাজ-রোজা পালন করেন। হজ ও উমরাহ পালন করতেও দেখা গেছে তাঁকে।

ইউরোপের এই ফুটবলারদের রোজা রাখার প্রসঙ্গটি প্রতিবছরই আসে। প্রত্যেক রোজাতেই তো তাঁদের খেলতে হয়। তবে বিশ্বব্যাপী ততটা আলোচিত হয় না, যতটা আলোচিত হয়েছিল ২০১৪ বিশ্বকাপের সময়। এমনিতে ব্রাজিলের গরমে লম্বা দিনের কারণে বিশেষ পানি পানের বিরতি পর্যন্ত চালু করতে হয়েছিল। ওই সময় রোজাও শুরু হয়ে গিয়েছিল। এবারও প্রসঙ্গটি আলোচিত হচ্ছে চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল বলে।