খেলাধুলা

আমার মাথায় এখন শুধুই বিশ্বকাপ: নেইমার

প্রথম জন ২০০২ সালে ব্রাজিলের পঞ্চমবার বিশ্বকাপ জয়ের অন্যতম নায়ক। আর এক জনকে ঘিরে রাশিয়ায় ষষ্ঠ বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন দেখছেন ব্রাজিল সমর্থকরা। বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার ঠিক এক মাস আগে প্যারিসে একসঙ্গে দেখা গেল দুই তারকাকে। প্রথম জন কিংবদন্তি রোনাল্ডো নাজারিও। অন্য জন নেইমার দ্য সিলভা স্যান্টোস (জুনিয়র)। ঠিক তার পরেই ব্রাজিল কোচ তিতে বিশ্বকাপের জন্য ঘোষণা করে দিলেন ২৩ জনের দল।

ফরাসি লিগে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি মার্সেইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচে চোট পাওয়ার পর থেকেই মাঠের বাইরে নেমার। তা সত্ত্বেও এই ফরাসি লিগে বর্ষসেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছেন প্যারিস সাঁ জারমাঁ (পিএসজি) তারকা। উত্তরসূরির হাতে পুরস্কার তুলে দিতেই প্যারিসে যান রোনাল্ডো।

তবে পুরস্কার অনুষ্ঠানেও আলোচনার কেন্দ্রে ছিল নেইমারের ভবিষ্যৎ নিয়ে বাড়তে থাকা জল্পনা। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের দাবি অনুযায়ী ইতিমধ্যেই ব্রাজিল তারকাকে নেওয়ার জন্য আসরে নেমে পড়েছে রিয়াল মাদ্রিদ ও ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড।

দুই ক্লাবের কর্তারাই দাবি করছেন, আগামী মরসুমে নেইমার তাঁদের হয়েই খেলবেন। কিন্তু তিনি নিজে কোথায় খেলতে চান তা নিয়ে এত দিন কোনও মন্তব্য করেননি নেমার। অবশেষে মুখ খুললেন পিএসজি তারকা।

ফরাসি সংবাদ মাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নেইমার বলেছেন, ‘‘আমার মাথায় এখন শুধুই বিশ্বকাপ। অন্য কিছু নিয়ে ভাবতেই চাই না। তা ছাড়া প্রত্যেক বছরই দল বদলের সময় এই ধরনের প্রশ্ন আমাকে শুনতে হয়। এটা অত্যন্ত বিরক্তিকর। তা ছাড়া এই মুহূর্তে আমি দল বদলে ব্যাপারে কোনও আলোচনাই করতে চাই না।’’ সোমবারই তিতের ঘোষিত বিশ্বকাপ দলে সে রকম বড় নাম বাদ পড়েনি। শুধু চোটের জন্য নাম নেই দানি আলভেজের। তাঁর জায়গায় দলে এসেছেন ম্যাঞ্চেস্টার সিটির রাইট ব্যাক দানিলো।

তবে নেইমার উচ্ছ্বসিত রোনাল্ডোর হাতে থেকে পুরস্কার নিয়ে। টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘এই পুরস্কার পেয়ে আমি দারুণ খুশি। সতীর্থ ও দলের অন্যান্য সদস্যদের ধন্যবাদ। ওরা না থাকলে এই সাফল্য অধরাই থাকত। সব চেয়ে গর্বিত কিংবদন্তি রোনাল্ডোর হাত থেকে পুরস্কার নিতে পেরে।’

রোনাল্ডোও এড়িয়ে গিয়েছেন নেইমারের দল বদলের প্রসঙ্গ। ব্রাজিলীয় কিংবদন্তি বলেছেন, পিএসজিতে সই করে নেমার ভুল করেছে কি না, আমার পক্ষে বলা সম্ভব নয়। মাত্র এক বছর হয়েছে ও এখানে এসেছে। তার মধ্যেই চোট পেল। যা খুবই দুঃখজনক। তাই বলা সম্ভব নয়, পিএসজিতে ও খুশি কি না।

তিনি যোগ করেছেন, নেমার দুর্দান্ত ফুটবলার। ফরাসি লিগে মাত্র এক বছরে ওর প্রচুর অবদান। তাই নেইমারকে নিয়ে বিশ্বের সর্বত্র আলোচনা হওয়াটাই স্বাভাবিক। নেইমারের ভবিষ্যৎ নিয়ে জল্পনার মধ্যেই ম্যানেজার উনাই এমেরির বিকল্প বেছে নিল পিএসজি। সোমবার দু’বছরের জন্য চুক্তি করল বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের প্রাক্তন ম্যানেজার থোমাস টুসেলের সঙ্গে।

ঘোষিত ব্রাজিল দল—গোলকিপার: অ্যালিসন (রোমা), এডেরসন (ম্যান সিটি), কাসিও (কোরিন্থিয়ান্স)

ডিফেন্ডার: মিরান্ডা (ইন্টার মিলান), মারকুইনহস, থিয়াগো সিলভা (দু’জনেই প্যারিস সাঁ জাঁরমা), মার্সেলো (রিয়াল মাদ্রিদ), ফিলিপে লুইস (আতলেতিকো মাদ্রিদ), ফ্যাগনার (কোরিন্থিয়ান্স), পেদ্রো জেরোমেল (গ্রেমিও), দানিলো (ম্যান সিটি)

মিডফিল্ডার: ক্যাসিমিরো (রিয়াল মাদ্রিদ), ফার্নান্দিনহো (ম্যান সিটি), পওলিনহো (বার্সেলোনা), রেনাতো অগুস্তো (বেজিং গুয়াওন), ফিলিপে কুটিনহো (বার্সেলোনা), উইলিয়ান (চেলসি), ফ্রেড (শাখতার দনেস্ক)

ফরোয়ার্ড: গ্যাব্রিয়েল জেসুস (ম্যান সিটি), রবার্তো ফিরমিনহো (লিভারপুল), ডগলাস কোস্তা (জুভেন্তাস), টাইসন (শাখতার) এবং নেইমার (প্যারিস সাঁ জারমাঁ)