খেলাধুলা

রোজা রেখেই ভারতের বিপক্ষে অভিষেক টেস্ট ম্যাচ খেলবে আফগানিস্তান জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা

আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তানের মধ্যকার তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। আজ পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে রোজা অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছে আফগানিস্তান

আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তানের মধ্যকার তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। আজ পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে রোজা অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছে আফগানিস্তান ক্রিকেট দলের ক্রিকেটাররা। এদিকে বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ রাত্রি হওয়ার কারণে রোজা রেখে খেলতে হবে না আফগানিস্তান ক্রিকেট দলের ক্রিকেটারদের।

তবে আগামী ১৪ থেকে ১৮ জুন ভারতের বিপক্ষে অভিষেক টেস্ট ম্যাচ খেলবে আফগানিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দল। এই মাসে রোজা দেখেই টেস্ট খেলবে বলে জানিয়েছে আফগানিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের কোচ ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক ক্রিকেটার ফিল সিমন্স।

তার অধীনে আফগানিস্তানের প্রথম টেস্টের প্রস্তুতিটাও হচ্ছে বেশ। তবে রমজান মাস চলায় ক্রিকেটাররা কিছুটা ক্লান্ত হয়ে পড়েন। কিন্তু এই পবিত্র রমজান মাসে ৫ দিনের টেস্ট খেলা নিয়ে মোটেই চিন্তিত নন কোচ।

সিমন্সের মতে, আফগানিস্তান দলে বেশ ফিট ক্রিকেটাররা খেলছেন। এই দল দুবার আইসিসির ইন্টার-কন্টিনেন্টাল কাপ (চার দিনের ম্যাচ) জিতেছে। তাই নিজের দলের সদস্যদের ওপর পুরোপুরি ভরসা আছে কোচের। এমনকি রোজা রেখে অনুশীলন ও খেলা চালিয়ে যাওয়াতেও সমস্যা দেখেন না কোচ। উল্টো মুসলিমদের এই প্রার্থনার প্রতি সম্মান জানিয়েছেন তিনি।

সিমন্স বলেন, ‘আমি গেল বছর থেকে তাদের সঙ্গে আছি। আমিও একাধিকবার তাদের সঙ্গে রোজা রাখার চেষ্টা করেছি তাই আমি জানি তাদের জন্য এটা কতটা কষ্টের। এটাই তাদের ধর্মীয় সংস্কৃতি, এটা তারা অনেককাল থেকেই পালন করে আসছে। এটাই প্রথমবার নয়, এর আগেও তারা রোজা অবস্থায় খেলেছে। আমি তাদের পছন্দ এবং সিদ্ধান্তে সম্মান জানাই।’

রমজান কোনো সমস্যা না হলেও সিমন্সের মতে, পাঁচ দিন ভারতের মতো দলের বিপক্ষে টিকে থাকার মানসিকতাই আসল। বলেন, ‘প্রথম টেস্টের পরই তারা এই খেলার উচ্চতা ও গুরুত্ব বুঝতে পারবে। তারা শিখতে পারবে কিভাবে মাঠে টিকে থাকতে হবে। মানসিকতা দৃঢ় করতে হবে।’

৩,৫ ও ৭ জুন বাংলাদেশের বিপক্ষে ভারতের দেরাদুনে তিন ম্যাচের টি-টিয়েন্টি সিরিজ খেলবে আফগানিস্তান। এরপর ১৪-১৮ জুন ভারতের বিপক্ষে সাদা পোশাকের অভিষেক টেস্ট খেলবে যুদ্ধ বিদ্ধস্ত এই দেশটি।

দলের ক্রিকেটাররা। এদিকে বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ রাত্রি হওয়ার কারণে রোজা রেখে খেলতে হবে না আফগানিস্তান ক্রিকেট দলের ক্রিকেটারদের।

তবে আগামী ১৪ থেকে ১৮ জুন ভারতের বিপক্ষে অভিষেক টেস্ট ম্যাচ খেলবে আফগানিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দল। এই মাসে রোজা দেখেই টেস্ট খেলবে বলে জানিয়েছে আফগানিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের কোচ ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক ক্রিকেটার ফিল সিমন্স।

তার অধীনে আফগানিস্তানের প্রথম টেস্টের প্রস্তুতিটাও হচ্ছে বেশ। তবে রমজান মাস চলায় ক্রিকেটাররা কিছুটা ক্লান্ত হয়ে পড়েন। কিন্তু এই পবিত্র রমজান মাসে ৫ দিনের টেস্ট খেলা নিয়ে মোটেই চিন্তিত নন কোচ।

সিমন্সের মতে, আফগানিস্তান দলে বেশ ফিট ক্রিকেটাররা খেলছেন। এই দল দুবার আইসিসির ইন্টার-কন্টিনেন্টাল কাপ (চার দিনের ম্যাচ) জিতেছে। তাই নিজের দলের সদস্যদের ওপর পুরোপুরি ভরসা আছে কোচের। এমনকি রোজা রেখে অনুশীলন ও খেলা চালিয়ে যাওয়াতেও সমস্যা দেখেন না কোচ। উল্টো মুসলিমদের এই প্রার্থনার প্রতি সম্মান জানিয়েছেন তিনি।

সিমন্স বলেন, ‘আমি গেল বছর থেকে তাদের সঙ্গে আছি। আমিও একাধিকবার তাদের সঙ্গে রোজা রাখার চেষ্টা করেছি তাই আমি জানি তাদের জন্য এটা কতটা কষ্টের। এটাই তাদের ধর্মীয় সংস্কৃতি, এটা তারা অনেককাল থেকেই পালন করে আসছে। এটাই প্রথমবার নয়, এর আগেও তারা রোজা অবস্থায় খেলেছে। আমি তাদের পছন্দ এবং সিদ্ধান্তে সম্মান জানাই।’

রমজান কোনো সমস্যা না হলেও সিমন্সের মতে, পাঁচ দিন ভারতের মতো দলের বিপক্ষে টিকে থাকার মানসিকতাই আসল। বলেন, ‘প্রথম টেস্টের পরই তারা এই খেলার উচ্চতা ও গুরুত্ব বুঝতে পারবে। তারা শিখতে পারবে কিভাবে মাঠে টিকে থাকতে হবে। মানসিকতা দৃঢ় করতে হবে।’

৩,৫ ও ৭ জুন বাংলাদেশের বিপক্ষে ভারতের দেরাদুনে তিন ম্যাচের টি-টিয়েন্টি সিরিজ খেলবে আফগানিস্তান। এরপর ১৪-১৮ জুন ভারতের বিপক্ষে সাদা পোশাকের অভিষেক টেস্ট খেলবে যুদ্ধ বিদ্ধস্ত এই দেশটি।