বিনোদন

ববিকে মাদক থেকে বাঁচিয়েছিলেন সালমান

বিনোদন ডেস্ক: সালমান আর ববি দেওলের সম্পর্ক বেশ পুরনো। ববি প্রায় লাইনচ্যুতই হয়ে গিয়ছিলেন। মাদকে ডুবতে বসেছিল ক্যারিয়ার। তখনই ববির জীবনে আসলেন বলিউডের ‘ভাইজান’ খ্যাত সালমান।

এমন এক সময় ছিল, যখন তার কোনো কাজ ছিল না। প্রতিদিন নিজেকে দেখে করুনা হত আর মদ খেয়ে পড়ে থাকতেন। এভাবেই চলছিল তার জীবন। এমন সময়ে ত্রাতা হয়ে আসেন ভাইজান খ্যাত সালমান খান। রেস থ্রির প্রচারে গিয়ে নিজের জীবনে সালমানের ভূমিকা অকপটে স্বীকার করলেন বলিউড অভিনেতা ববি দেওল।

জিনিউজের খবর, এক সময় সোলজার ফিল্মে অভিনয় করে সিলভার স্ক্রিনে ছেয়ে গিয়েছিলেন যিনি। সেই ববিই নাকি কাজ পাচ্ছিলেন না। এতটাই করুণ অবস্থা হয়েছিল তার যে মাদকাসক্ত হয়ে পড়েছিলেন।

এর মধ্যে শ্রেয়াস তালপাড়ে একদিন পোস্টার বয়েজের ক্রিপ্ট নিয়ে তার কাছে আসেন। সেটায় অভিনয় করলেও বক্স অফিসে তেমন সাফল্যের মুখ দেখেনি ছবিটি। আবসাদ আরও গভীর হতে শুরু করে। তখন সালমানের সঙ্গে দেখা।

সেলিব্রিটি ক্রিকেট লিগ খেলার সময় সালমানের সঙ্গে বন্ধুত্ব হয় ববির। একদিন হঠাৎ সালমান তাকে বলেন, দেখ, যখন আমার ক্যারিয়ার ছিল না। তখন আমি সঞ্জয় দত্ত ও তোর ভাইয়ের (সানি দেওল) পিঠে চড়ে বসেছিলাম। এ সময় সল্লুকে ববি বলেন, ‘আমাকে তোর পিঠে চাপতে দে এবার। তারপর আর পেছন ফিরে দেখতে হয়নি। একদিন সালমান ফোন করে বলেছিল, শার্ট খুলতে হবে। ববির উত্তর ছিল, আমি সবকিছু করতে রাজি।

তারপরই রেস থ্রিতে কাজ করার সুযোগ আসে ববির। ববি জানান, সালমানের সঙ্গে কাজ করে নিজের আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছেন তিনি। এখন আর বাড়িতে বসে থাকেন না তিনি। প্রতিদিন কাজ পাওয়ার জন্য ছোটাছুটি করেন।