খেলাধুলা

সেই আমজাদ যাচ্ছেন জার্মানী

কেউ বলছেন পাগলামী কেউ বলছেন আদিক্ষেতা সে যাই হোক ২০০৬ সাল থেকে প্রতি বিশ্বকাপে জার্মানীরর দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর পতাকার দৈর্ঘ্য দিয়েই ঘোড়ামারা গ্রাম থেকে আমজাদ হোসেনের (৬৫) গন্তব্য হচ্ছে এবার জার্মানী।

২০১৪ সালে সাড়ে ৩ কি.মি. ইউরোপ দেশের পতাকা তৈরী করেছিলেন যা দেখতে খোদ বাংলাদেশে নিযুক্ত জার্মান রাষ্ট্রদূত এসেছিলেন মাগুরায়, তাকে জার্মান ফ্যান ক্লাবের আজীবন সদস্য হিসাবে দিয়েছিলেন স্বীকৃতি ও জানিয়েছিলেন সম্মানতা। এবছর রাশিয়া বিশ্বকাপে তার পাগলামীর সংযোজন আরও ২ কি.মি অর্থাৎ সাড়ে ৫ কি.মি জার্মান পতাকার কারিগর। যা দেখতেই এবার ঢাকা থেকে এসেছিলেন জার্মান কূটনীতিকবৃন্দ ও জার্মান ফুটবল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা।

মাগুরা সদরের ঘোড়ামারা গ্রামের জার্মানীর অন্ধভক্ত আমজাদ হোসেনের জার্মান প্রীতি যেন সকল জার্মান মানুষের নজর কেড়েছে। সে কারনেই এই ভক্তকে তার সাড়ে ৫ কি.মি দীর্ঘ বিশ্বের সুদীর্ঘ জার্মান পতাকা তৈরী করার পুরস্কার হিসাবে জার্মানী ভ্রমনের সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে বলে জানান কূটনীতিক ক্যারেন উইজোরা,খবর টি খোদ জানিয়েছে জার্মান নিউজ চ্যানেল ডয়েচে ভ্যালে।

জমিজমা বিক্রি করে এত বিশাল পতাকা তৈরী সত্যিই জার্মানির প্রতি এক বাংলাদেশীর অকৃতিম ভালবাসার নিদর্শন সেই কারনেই তার জার্মান সফরের ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলেও জানানো হয়।

এদিকে জার্মানী ভ্রমনের কথা শুনে কৃষক আমজাদ হোসেন এর স্বপ্ন যেন বাস্তবে রুপান্তরিত হওয়ায় কোন বাক্যই ঠিক আবেগ ও অনুভূতির বহি:প্রকাশ হিসাবে যথেষ্ট মনে করছেন না।