খেলাধুলা

জিম্বাবুয়ে সিরিজে বিসিবির প্রাথমিক একাদশে থাকছেন যে টাইগাররা

সদ্যই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পূর্নাঙ্গ সিরিজ করেছে বাংলাদেশ। সফল এ পূর্নাঙ্গ সিরিজে ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টি সিরিজ জিতেছে টা্‌ইগাররা্। যদিও টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে। আগামী মাস থেসে আবার ব্যস্ততম সময় পার করবে মাশরাফি-সাকিব বাহিনী।

আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর সংযুক্ত আরব আমিরাতে পর্দা উঠবে এশিয়া কাপের। ১৪ তম এ আসরটি শুরু হবে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে। এ টুর্নামেন্ট শেষে অক্টোবরে বাংলাদেশ সফরে আসবে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। আর তাদের বিপক্ষে দেশে মাটিতে একটি দ্বিপক্ষীয় সিরিজে অংশ নিবে টাইগাররা। সিরিজে তিনটি ওয়ানডে এবং দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলবে।

২১ অক্টোবর থেকে শুরু হবে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। ২৪ ও ২৬ অক্টোবর সিরিজের বাকি দুটি ওয়ানডে ম্যাচ অনুষ্টিত হবে। প্রথম ম্যাচটি হবে মিরপুর শের ই বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে। বাকি দুটি ম্যাচ হবে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে।

এরপর টেস্ট। টেস্টের আগে বিসিবির একটি দলের সাথে তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা রয়েছে জিম্বাবুয়ে দল। সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে আগামী ৩ নভেম্বর থেকে প্রথম টেস্ট চলবে ৭ নভেম্বর পর্যন্ত। আর ১১ থেকে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত ঢাকার মিরপুর শের ই বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে হবে দ্বিতীয়।

টাইগারদের সামনে এবার ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং জিম্বাবুয়ে সিরিজ। আর সেই সিরিজকে সামনে রেখে এখন থেকেই ব্যাটসম্যানদের একটি তালিকা করা হচ্ছে বলেই আজ সাংবাদিকদের জানালেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। আর সেই তালিকায় আছে নতুন ক্রিকেটাররা সেটিও জানালেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘বিশেষ করে ওয়ানডে এবং টেস্টের জন্য তো আমাদের দেখতেই হবে। সেই জন্য একটা আলাপ আলোচনা হচ্ছে। একটি লিস্ট করা হয়েছে, সেখান থেকে সামনে যে সিরিজগুলো হবে জিম্বাবুয়ে এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে, সেখানে বেশ কিছু নতুন ছেলে ঢোকানোর সুযোগ আছে। ঢুকাবো কিনা জানি না বা ঢুকবে কিনা সেটাও জানি না। তবে একটা সুযোগ আছে। আমরা চেষ্টা করবো দুই একটি নতুন ক্রিকেটারকে নিতে।তবে এ সিরিজ্র আগেই শেষ হয়ে যাবে আশরাফুলের নিষেধাজ্ঞা,তাকে নিয়েও আমাদের বিশেষ পরিকল্পনা রয়েছে।’