খেলাধুলা

দায়িত্বজ্ঞানহীন মাথামোটা এবং নির্বোধ ‘কোহলিরা

বিশ্বের এক নম্বর টেস্ট দল কস্মিনকালেও এমন নিন্দা শোনেনি, যা  এখন তাদের শুনতে হচ্ছে। গত চার বছরে (কোহলি টেস্ট অধিনায়ক হওয়ার পর থেকে) যে টেস্ট দল ৩৯টি ম্যাচে হেরেছে মাত্র ৭টি-তে, সেই দলকে ‘মাথামোটা’, ‘নির্বোধ’, ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন’ এবং ‘শিশুসুলভ’-র বলে অপমান করা হচ্ছে। হ্যাঁ, এটা শোনার পর আপনি আঁতকে উঠলেও সত্যটা হজম করতেই হবে। কারণ, বিরাটের দলকে এভাবে যিনি গালমন্দ করলেন, তিনি ব্রিটিশ ক্রিকেট তো বটেই বিশ্ব ক্রিকেটের কেউকেটাদের মধ্যে অন্যতম একজন, কিংবদন্তী জিওফ্রে বয়কট।

এখনও পর্যন্ত ৩৭ টেস্টে ভারতকে নেতৃত্ব দিয়েছেন বিরাট, তার মধ্যে ২১টি-তে জয় এসেছে। হার হয়েছে ৭টি ম্যাচে আর ড্র হয়েছে ৯টি ম্যাচ। জয় ৫৬.৭৫ শতাংশ ম্যাচেই। যা ভারতীয় অধিনায়কদের মধ্যে সর্বকালের সেরা রেকর্ড। বিরাটের এই নজিরের সঙ্গে একমাত্র তুলনা চলে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ আর ধোনিরই। ৪৯ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়ে ভারতকে ২১ ম্যাচে জয় এনে দিয়েছেন প্রিন্স অব কলকাতা। ধোনির নেতৃত্বাধীন ভারত ৬০টি ম্যাচের মধ্যে জিতেছে ২৭টি-তে।

এই বিচারে বিরাট কিছুটা এগিয়ে থাকলেও বর্তমান ভারত অধিনায়কের বেশিরভাগ টেস্ট জয়ই এসেছে ঘরের মাঠে। ক্যারিবিয়ান সিরিজ জিতলেও উপমহাদেশের বাইরে ব্যর্থ হয়েছেন বিরাট। দক্ষিণ আফ্রিকায় টেস্ট সিরিজ ২-১-এ হেরেছে তারা। যদিও বিরাটদের লড়াই প্রশংসিত হয়েছিল। যা দেখার পর, ধরে নেওয়া হয়েছিল ক্রিকেট ইতিহাসে ‘সবথেকে দুর্বলতম ইংল্যান্ড দলের’ বিরুদ্ধে এই ভারতীয় দল বেশ ভারী পড়বে।

কিন্তু, বাস্তবের ছবিটা একেবারে উল্টো। সোয়ান, স্ট্রস, বেল, কেভিন পিটারসন, ফ্লিনটফ ছাড়া একটা আধা অভিজ্ঞ ইংল্যান্ড দল নাকানিচোবানি খাওয়াচ্ছে ভারতকে। যা দেখে জিওফ্রে বয়কট বলছেন, “ভারত ঔদ্ধত্য নিয়ে এখানে (ইংল্যান্ড) এসেছিল। ওরা ভেবেছিল একই রকমভাবে (উপমহাদেশের মতো) ব্যাট করবে এবং জিতবে। পরিস্থিতি মোতাবেক পরিকল্পনা না করলে যে দুর্ভোগে পড়তে হয়, সেটা টের পাচ্ছে ভারত। ওদের এমন শাস্তি দরকার ছিল”। বিশ্বের এক নম্বর টেস্ট দলের ব্যাটিং-কে তীব্র সমালোচনা করে ব্রিটিশ কিংবদন্তী আরও বলেন, “ভারতীয়দের ব্যাটিং শিশুসুলভ, দায়িত্বজ্ঞানহীন”।

১০৮ টেস্ট খেলা এই ব্রিটিশ ব্যাটসম্যানের শ্লেষ, বিরাটরা হতবুদ্ধির মতো ক্রিকেট খেলছে! যদিও বয়কটের এই ব্যজস্তুতির পাল্টা কোনও জবাব দেয়নি ভারত। আর মুখে জবাব দেওয়ার মতো কোনও নজির গড়তে পারেনি ইংরেজদের মহল্লায়। বিরাট বাদ দিয়ে গোটা দলের ব্যাটিং লাইন আপ দুই অঙ্কের রান করতে হিমশিম খাচ্ছে সেখানে এমন তীব্র আক্রমণ মাথা নীচু করে ‘ডাক’ করা ছাড়া উপায়ই বা কি আছে! -জিনিউজ