পরিবর্তন এনেছেন নিজের চার বছরের অধিনায়কত্ব অধ্যায়ে

Loading...

২০১৪ সালে মহেন্দ্র সিং ধোনি হুট করেই অধিনায়কত্ব ছাড়ার ঘোষণা দিলে ভারতীয় ক্রিকেট দলের নতুন অধিনায়ক হিসেবে ঘোষণা করা হয় বিরাট কোহলির নাম। এরপর থেকে এখনো পর্যন্ত ৩৮টি টেস্টে ব্লু বিগ্রেডদের নেতৃত্ব দিয়েছেন কোহলি। কিন্তু অবাক করা তথ্য হচ্ছে কোন ম্যাচেই তিনি আগের ম্যাচের অপরিবর্তিত একাদশ রাখেননি। দলে কোনো পরিবর্তনই আনলো না ভারত।

প্রতি ম্যাচেই অন্তত একটি হলেও পরিবর্তন এনেছেন নিজের চার বছরের অধিনায়কত্ব অধ্যায়ে। তবে আসন্ন সাউদাম্পটন টেস্টে এই রীতির পরিবর্তন আসার সম্ভাবনা প্রবল। নটিংহ্যাম টেস্টে অসাধারণ জয়ের পরে সিরিজে টিকে থাকার লড়াইয়ে আগামী বৃহস্পতিবার (৩০ আগস্ট) সাউদাম্পটনে খেলতে নামবে কোহলির ভারত।

সেই ম্যাচে প্রথমবারের মতো অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে নামার পরিকল্পনা আঁটছেন কোহলি। এব্যাপারে আনুষ্ঠানিক কিছু জানা না গেলেও, সাউদাম্পটনে ভারতীয় দলের অনুশীলনের পর এমনটাই ধারণা করা হচ্ছে। টেস্ট শুরুর তিন দিন আগে সাউদাম্পটনে প্রথম টেস্টের ক্রম অনুসারেই অনুশীলনে নামেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা।

নটিংহামে ইনিংসের সূচনা করা শিখর ধাওয়ান ও লোকেশ রাহুল প্রথমে যান নেটে। পরে ক্রম অনুসারে চেতেশ্বর পুজারা, বিরাট কোহলি ও আজিঙ্কা রাহানে আসেন। আগের ম্যাচে অভিষিক্ত রিশাভ পান্টকে নিয়ে এরপরে নেটে যান হার্দিক পান্ডিয়া। বোলারদের মধ্যেও দেখা যায় এই ধারাবাহিকতা।

প্রাথমিকভাবে মঙ্গলবার নিজেদের অনুশীলন শুরু করার কথা ভেবেছিল ভারতীয় টিম ম্যানেজম্যান্ট। কিন্তু পরে দলের ভালোর কথা ভেবেই এক দিন আগেই শুরু করে দেয়া হয় অনুশীলন। শেষ দুই টেস্টের জন্য উড়িয়ে নেয়া হানুমা বিহারী ও পৃথ্বী শা’ও এদিন দলের সাথে অনুশীলন করেন। যদিও তাদের অভিষেক হওয়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

Be the first to comment on "পরিবর্তন এনেছেন নিজের চার বছরের অধিনায়কত্ব অধ্যায়ে"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*