খেলাধুলা

নান্নুর সাথে মিটিংয়ের ফাকে আশরাফুলকে নিয়ে যা বললেন মাশরাফি

সামনে এশিয়া কাপ,তাই অনুশীলনে ঘাম ঝরাচ্ছেন টাইগাররা। এশিয়া কাপের জন্য পুরোধোমে অনুশীলন করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। সেই অনুশীলনের পরিপ্রেক্ষিতে আজও অনুশীলন হলো বাংলাদেশ দলের। কিন্তু আজ অনুশীলন শেষে বাংলাদেশ দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নুর সাথে মিটিং করেছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

সামনে এশিয়া কাপের জন্য মূল স্কোয়াড নির্বাচন ইস্যুতে কথা হয়েছে দুই পক্ষের। ধারনা করা হচ্ছে, মূল স্কোয়াডের আসল রূপরেখা অনেকটাই নিশ্চিত হয়েছে বুধবারের বৈঠকে। অনুশীলন শেষের প্রায় তিন ঘণ্টা পর প্রধান নির্বাচক ও সাবেক অধিনায়ক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু ও হাবিবুল বাশারকে বিসিবি ভবন থেকে বের হয়ে যেতে দেখা যায়।

কিন্তু তার খানিকবাদেই বের হয়েছেন ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। এদিকে বুধবার দেশে ফিরেছেন বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। এশিয়া কাপে সাকিবের থাকা না থাকা ইস্যুতে কোন খবর জানা যায় নি। আগামীকালকেই প্রধান দুই নির্বাচকের সাথে মিটিং এ বসার কথা কোচের। এরপরেই আসতে পারে চূড়ান্ত দল ঘোষণা।দেখা যাক চুরান্ত একাদশে কি হয়।

এরি মধ্যে ম্যাশ একটি মজার ঘটণা ঘটিয়ে ফেলে নান্নুর সাথে,বন্ধু আশরাফুল প্রসঙ্গে ম্যাশ নান্নুকে বলেন,ছেলেটা তো অন্যায় করে সাজা ভোগ করেছে তার দিকে কি একটু তাকানো যায়না? তাকে কি বিশেষ বিবেচনায় রাখা উচিত না? আমার মনে হয় উৎসাহ পেলে আশরাফুল আবার ক্লাসিক রুপে কামব্যাক করবে।বাংলাদেশকে সুপার সার্ভিস দিবে সে।মাশরাফির এই প্রশ্নের জবাবে অবশ্য নান্নু তার চতুরতা দেখিয়েছেন, সে কোন জবাব না দিয়ে সবার আগে রোম থেকে বেরিয়ে গেছেন। যাই হউক আমরা আশরাফুল প্রেমিরা কখনো হতাস নই,আমাদের আশা আশরাফুল আবার ফিরবে এবং সে নিয়মিত জাতীয় দলে খেল্বে।

এশিয়া কাপের আগে যে দুইটি রেকর্ডের প্রান্তে মুশফিক-মাশরাফি

আর ২ সপ্তাহ পরেই শুরু হতে যাচ্ছে এশিয়া কাপ। সেই টুর্নামেন্টে অন্যতম হট ফেভারিট দল বাংলাদেশ। এই এশিয়া কাপেই অন্যতম মাইলফলক ছোয়ার অপেক্ষায় বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি এবং উইকেট কিপার মুশফিক।

৯০ অডিয়াইতে ২৪৫ উইকেট নেওয়া মাশরাফির সামনে লক্ষ্য ২৫ তম আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ও ১ম বাংলাদেশি হিসেবে একদিনের ক্রিকেটে ২৫০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শের। তাছাড়া আর মাত্র ৩ উইকেট পেলে উইকেট সংখ্যায় মাশরাফি পেছনে ফেলবেন পাকিস্তানি গতি তারকা শোয়েব আক্তারকে, ১৬৩ ম্যাচে শোয়েবের উইকেট ২৪৭. উল্লেখ্য, ২৩৭ উইকেট নিয়ে টাইগারদের মধ্যে মাশরাফির পরেই অবস্থান সাকিবের।

অপরদিকে ব্যাট হাতে মুশফিকের সামনে হাতছানি ৩য় বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে একদিনের ক্রিকেটে ৫০০০ রানের মাইলফলক স্পর্শের। ১৮৭ ম্যাচে ৩৩ গড়ে মুশফিকের বর্তমান রান ৪৮২৮, ৫০০০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করতে মিঃ ডিপেন্ডেবল দরকার ১৭২ রান। টাইগারদের মধ্যে কেবল তামিম ইকবাল (৬৩০৫) ও সাকিব আল হাসানের (৫৪৩৩) আছে এই মাইলফলক স্পর্শের রেকর্ড। ওয়ানডেতে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা মাশরাফি যদি তার ফর্মটি ধরে রাখতে পারেন এশিয়া কাপে আর মুশফিক যদি তার আগের এশিয়া কাপের মতোই পারফর্ম করতে পারেন তাহলে এই দুইটি অসম্ভব নয় এই দুইজনের জন্য।