Notunshokal.com
বিনোদন

বায়োপিক ‘করণজিৎ কউর : দ্যা আনটোল্ড স্টোরি অফ সানি লিওন’

সানি লিওন কোন ধর্মের অনুসারী? হঠাৎ সামনে এলো এমন নতুন বিতর্ক। আর এর কারণ তার বায়োপিক ‘করণজিৎ কউর : দ্যা আনটোল্ড স্টোরি অফ সানি লিওন’। ওয়েব সিরিজটির ট্রেলার সামনে আসার পর অনেকেই এ নিয়ে শুরু করেছেন বিতর্ক। সিরিজটির নামে ‘কউর’ পদবী রাখা যাবে না- সম্প্রতি এই দাবিতে সরব হয়েছে শিখ ধর্মাবলম্বীদের কিছু সংগঠন

সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে ‘করণজিৎ কউর : দ্যা আনটোল্ড স্টোরি অফ সানি লিওন’-এর ট্রেলার। আর তারপর থেকেই বিতর্ক দানা বেঁধেছে।

শিরোমণি গুরুদুয়ারা প্রবন্ধক কমিটির মুখপাত্র দলজিৎ সিং বেদির দাবি, সানি লিওনের বায়োপিকটির নাম রাখা হয়েছে ‘করণজিৎ কউর : দ্যা আনটোল্ড স্টোরি অফ সানি লিওন’। তবে এখানে কউর শব্দটি নিয়ে আপত্তি রয়েছে। সানি বহু আগেই ধর্ম পরিবর্তন করেছেন। তাই উনি ‘কউর’ শব্দটি ব্যবহার করতে পারেন না।

কারণ, এটা শিখ ধর্মাবলম্বী নারীদের শিখ গুরুদের দেওয়া একটা ধর্মীয় পদবী। একজন নারী যিনি শিখ রীতিনীতি কোনও কিছুই মেনে চলেন না তিনি এটা কোনওভাবেই ব্যবহার করতে পারেন না। তাঁর (সানি লিওন) উচিত জনসমক্ষে এবিষয়ে ক্ষমা চাওয়া।

তবে শুধু শিখ ধর্মাবলম্বীদের সংগঠনের পক্ষ থেকেই নয়, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে বিশেষত আকালি দলের পক্ষেই ‘কউর’ শব্দটি ব্যবহার নিয়ে আপত্তি জানানো হয়েছে। তাঁদের অভিযোগ, ‘সানি ‘কউর’ শব্দটি শুধুমাত্র ওয়েব সিরিজের সাফল্যের জন্যই ব্যবহার করছেন। আমরা কউর শব্দটি বাদ দেওয়ার দাবি জানাচ্ছি, কারণ এটা শিখ ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত লাগবে।’

যদিও এবিষয়টি নিয়ে সানি লিওন নিজে কোনও মন্তব্য করেননি। এমনকি সানি লিওন আদৌ ধর্ম পরিবর্তন করেছেন কিনা সেবিষয়ে সঠিক তথ্য জানা যায় নি। এখনও উইকিপিডিয়াতে দেওয়া তথ্য অনুসারে সানি লিওনের প্রকৃত নাম করণজিৎ কউর ভোর ও উনি শিখ ধর্মাবলম্বী।

বায়োপিকে অন্য এক সানি লিওন
তবে নতুন সানির এই বায়োপিকে তাঁর স্বামীর চরিত্রে দেখা যাবে না ড্যানিয়াল ওয়েবারকে। এই বায়োপিকে ড্যানিয়ালের চরিত্রে অভিনয় করবেন দক্ষিণ আফ্রিকার অভিনেতা মার্ক বাকনর। যদিও এই চরিত্রের জন্য প্রথমে ড্যানিয়েল ওয়েবারের কাছেই প্রস্তাব গিয়েছিল। তবে তিনি নাকচ করে দেওয়ার পর এই প্রস্তাব পৌঁছয় মার্ক বাকনরের কাছে।

ড্যানিয়েল বলেন, ‘এই চরিত্রটির জন্য স্ক্রিন টেস্ট হয়েছে কেপ টাউনে। আর সেখান থেকেই মার্ককে বেছে নেওয়া হয়েছে। মার্ক আপাতত চিত্রনাট্য বুঝে নিচ্ছেন এবং ঠিক কী করতে হবে সেভাবে নিজেকে তৈরি করার চেষ্টা করছেন। এমনকি মার্ক আমার মতো ট্যাটুও করিয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘প্রথমে ভেবেছিলাম চরিত্রটা করব। তবে পরে ভাবলাম ওয়েব সিরিজে অভিনয়ে সময় দেওয়ার থেকে যে কাজটা আমি প্রতিদিন করি তাতে সময় দেওয়াই বেশি ভালো বলে আমার মনে হয়েছে। শ্যুটিং ৬০-৯০ দিন সময় দেওয়ার থেকে আমার মনে হয়েছে আমার নিজের কোম্পানির কাজে মনোযোগ দেওয়া বেশি ভালো। কারণ আমাকে কোম্পানির অনেক দায়িত্ব সামলাতে হয়।

আরও পড়ুন

হ্যাপির প্রথম ছবি শেষ পর্যন্ত নিষিদ্ধ হলো

Syed Hasibul

হোটেলে ভারতীয় অভিনেত্রী পায়েল চক্রবর্তীর ঝুলন্ত লাশ, হত্যা নাকি আত্মহত্যা?

Adnan Opu

হেয়ার ট্রান্সপ্ল্যান্ট করে টাক ঢেকে সিনেমায় ফিরেছেন বলিউডের যেসব অভিনেতা

Syed Hasibul