Notunshokal.com
এক্সক্লুসিভ

প্রেমিক বা প্রেমিকা নিয়ে ঘুরে আসুন গোলাপরাজ্যে!

ঘুরে আসুন গোলাপরাজ্যে!

ব্যাস্ত নগরীতে সময়ের অভাবে প্রায়ই আমরা ঘুরে বেড়ানোর জায়গার অভাব বোধ করে থাকি। ঢাকার ভিতরে যদি পাওয়া যায় কোনো মনোমুগ্ধকর স্থান তাহলে তা যেনো আকাশের চাঁদ হাতে পাওয়া। তেমনি ঢাকার ভিতরে মিরপুরের নিকটেই রয়েছে সাদুল্লাপুর গ্রাম। গ্রামের ভেতর দিয়ে চলে গেছে আঁকাবাঁকা সরু পথ। পথ ধরে কিছুটা আগালেই দেখা যাবে অসংখ্য গোলাপের বাগান। অজস্র লাল গোলাপ মন ও চোখ জুড়ে দিবে শান্তির পরশ। এছাড়া সাদা গোলাপ, গ্লাডিওলাস, জারবারার বাগানও চোখে পড়বে। ঢাকার খুব সন্নিকটে সাভারের বিরুলিয়া ইউনিয়নের তুরাগ নদীর তীরে গোলাপ গ্রাম সাদুল্লাহপুরের অবস্থান। এই গ্রামে ঢুকতেই  চোখ যাবে সারি সারি গোলাপ বাগানের দিকে। এ যেন লাল টকটকে গোলাপের রাজ্য। বাতাসে ভেসে আসা ফুলের সৌরভ মনকে বিমোহিত করে তুলবে।

এই গ্রামের ৯০ ভাগ লোকের পেশা গোলাপ চাষ। এখানে মূলত মিরান্ডা প্রজাতির লাল গোলাপের চাষ হয়। পুরো গ্রামজুড়ে সারা বছরই  ফুলের চাষ হয়। প্রতিদিন প্রায় ৬০ থেকে ৭০ হাজার ফুল বিক্রি হয়। এখান থেকেই ঢাকার বাজারের ফুলের চাহিদার প্রায় ৭০ ভাগ পূরণ হয়। ৩০০ পিসের গোলাপ ফুলের আঁটি বিক্রি হয় ৪০০-৫০০ টাকায়। ৫০-১০০ পিস গোলাপ নিজের জন্যখুব সস্তায় কিনে আনা সম্ভব।

ঢাকার মিরপুর দিয়াবাড়ি ট্রলার ঘাট থেকে মাত্র ৩০ মিনিটের দূরত্বে রয়েছে সাদুল্লাপুর গ্রাম। ট্রলার থেকে নেমে ৫০ গজ সামনে গেলে পাবেন বাজার। এই বাজার পার হলেই রাস্তার দুই পাশে সারি সারি গোলাপ বাগান।ঢাকার বিভিন্ন স্থান থেকে মিরপুর বেড়িবাঁধে বাস সার্ভিস চালু রয়েছে। বাস থেকে নেমে বটতলা ট্রলার ঘাটে নামতে হবে। অথবা মিরপুর গোলচত্বর বা গাবতলী থেকে রিকশা করে দিয়াবাড়ি বটতলা পর‌্যন্ত যাওয়া যায়। ঘাট থেকে ৩০ মিনিট পর পর ট্রলার ছাড়ে। যার ভাড়া জনপ্রতি ২০ টাকা। যাত্রাপথে যেমনি উপভোগ করা যাবে নদীর সৌর্ন্দয তেমনি খুব কাছ থেকে দেখা যাবে গোলাপের অপরুপ সৌ্র্ন্দয। এরপর চাইলে রিকশাযোগে বা পায়ে হেঁটে ঘুরতে পারবেন পুরো গ্রাম। ঢাকার ভেতরে ঘুরার জন্য গোলাপ গ্রাম সত্যিই অপূর্ব।

আরও পড়ুন

হারিয়ে যাওয়া আটলান্টিস শহরের খোঁজ মিলেছে সাহারা মরুভূমিতে!

Adnan Opu

স্বর্ণ দিয়ে বাঁধাই করা কোরআনটি ধরতেই চোরের কানে এলো আজান!

Adnan Opu

সুইসাইড নোটের দাম প্রায় ২ কোটি টাকা!দেখে নিন কী রয়েছে সেই লেখায়?