তার শয্যাসঙ্গী শতাধিক নারী, কারণ জানলে কপালে চোখ উঠবে আপনার!

Loading...

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  : তার শয্যাসঙ্গী শতাধিক নারী, কারণ জানলে কপালে চোখ উঠবে আপনার! দেখতে হুবহু উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের মতো দেখতে তিনি। শুধু এ কারণেই তিনি শতাধিক নারীকে শয্যাসঙ্গী করেছেন। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে পারফরমেন্স করেন। তার প্রতিটি থেকে আয় ১০ হাজার পাউন্ড করে। একবার তো তিনি লস অ্যানজেলেসে পপ তারকা কেটি পেরিকে চমকে দিয়েছিলেন। যার কথা বলছি তার নাম হাওয়ার্ড এক্স (৩৮)। তিনি দেখতে একেবারেই কিম জং উনের মতো। তাই এই সুবিধাকে কাজে লাগাচ্ছেন।

কামিয়ে নিচ্ছেন প্রচুর অর্থ। আর তাকে দেখে মজে যান অনেক নারী, যুবতী। তাদের শেষ পরিণতি ঘটে বিছানায়। এমনই সঙ্গ নিয়েছেন তিনি কমপক্ষে ১০০ নারীর। বৃটেনের অনলাইন দ্য সান এ খবর দিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, হাওয়ার্ড এক্স তার পুরো নাম প্রকাশে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। তিনি হংকংয়ের নাগরিক। তিনি বলেছেন, কিম জং উনের মতো হুবহু দেখতে আমি।

তা আমাকে অবশ্যই জনপ্রিয় করে তুলেছে। সব নারীই আমার সঙ্গে ছবি তুলতে চান। আমার সঙ্গে ডজন ডজন নারীর সম্পর্ক আছে। ৫ বছর আগে এমন সম্পর্কের শুরু। এখনও চলছে। থামে নি। আমি এসব নারীকে কৌতুক করে বলি তাদেরকে আমি দুই নম্বর, তিন নম্বর, চার নম্বর মন্ত্রী বানাতে পারি।

তার সঙ্গে যোগ দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের মতো দেখতে ডেনিস অ্যালেন (৬৬)। দু’জনে মিলে অর্থ আয়ের পথ ধরেছেন। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তারা পারফরম করেন। তাতে আয় হয় মোটা অংকের অর্থ। হাওয়ার্ড এক্স বলেন, সবচেয়ে বড় দুটি ‘ইডিয়ট’ ও পাগলা মানুষের যেন নকল কপি আমরা।

যখন আমরা যুবতীতের চুমু খাই আবার তাদের সঙ্গে অন্তরঙ্গ যৌন সম্পর্ক স্থাপন করি তখন তারা তা লুফে নেন। সিঙ্গাপুরে তারা যেন এটাই চান। রেস্তোরাঁগুলোতে তো আমাদের জন্য পানীয় ও খাবার ফ্রি। সান গ্লাস থেকে শুরু করে ফ্রাইড টিকেনের মতো পণ্যের বিক্রিতে সহায়তা করে আমরা অর্থ উপার্জন করি।

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন হিসেবে এক একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিতির জন্য হাওয়ার্ড এক্স নেন ১০ হাজার পাউন্ড। আর এমন সব অনুষ্ঠানে তার সঙ্গে সাক্ষাত হয়ে যায় বিখ্যাত সব তারকাদের। ২০১৫ সালের কথা। লস অ্যানজেলেসে তখন গ্রামি পুরস্কার অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছে। সেখানে ঢুকে পড়েন হাওয়ার্ড এক্স। আর চমকে দেন পপ তারকা কেটি পেরিকে। এক পর্যায়ে তিনি কেটি পেরির কাছে জানতে চান- আপনি কি আমাকে চিনতে পেরেছেন?
কেটি পেরি জবাবে বলেন, আপনাকে এ দেশে কে ঢুকতে দিয়েছে তা ভেবে আমি বিস্মিত হই।