খেলাধুলা

মাশরাফির বোলিংয়ে মুগ্ধ কোচ কোর্টনি ওয়ালস। মাশরাফিকে টেস্ট দলে চান তিনি

অনেকদিন ধরেই বাংলাদেশ জাতীয় দলে সাথে কাজ করছেন কিংবদন্তি পেস বোলার কোটনি ওয়ালস। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাথে অনেকটাই পরিচিত হয়ে গিয়েছেন তিনি। মাশরাফি বিন মুর্তজা, রুবেল হোসেনদের কোচ এবার রাগ ঝাড়লেন নির্বাচকদের উপর। ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ ক্রিকেট দল নিয়ে শঙ্কিত ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই কিংবদন্তি।

বাংলাদেশ জাতীয় দলের অভিজ্ঞ ক্রিকেটাররা ছাড়া তেমন পারফরম্যান্স করতে পারছে না নতুন ক্রিকেটাররা। সাকিব, তামিম, মুশফিক, মাশরাফিদের যেভাবে সুযোগ দেয়া হয় সেভাবে নাকি সুযোগ দেয়া হচ্ছে না তরুণ ক্রিকেটারদের। এ বিষয়ে কোটনি ওয়ালস বলেন, ‘আমাদের অনেক তরুণ ক্রিকেটার উঠে আসছে।

যদি তাদেরকে দলে সুযোগ না দেয়া হয়, আপনি বুঝতে পারবেন না তারা কতটা কার্যকর হতে পারে। এই একটি বিষয়ে সম্ভবত আমাদের নজর রাখা উচিৎ। আমরা তরুণ ক্রিকেটারদের সুযোগ দিতে অনেক বেশি ভয় পাই। আপনি যদি এভাবে অপেক্ষা করতেই থাকেন এবং তাঁরা খেলার কোনও সুযোগই না পায় তাহলে উন্নতি হবে না।

আপনি যতই খেলবেন, ততই আপনার শেখার সুযোগ বৃদ্ধি পাবে। তাঁরা কি করতে পারে সেটি জানার জন্য কখনও কখনও তাদেরকে আপনার সুযোগ দিতে হবে। কিন্তু যদি আপনি তাঁরা প্রস্তুত নয় এই কথা বলে তাদেরকে সুরক্ষিত করে রাখতে চান, তাহলে হয়তো তাঁরা কখনোই প্রস্তুত হতে পারবে না।’

এই আলাপের ফাঁকেই মাশরাফির ব্যাপারে বলতে গিয়ে ওয়ালশ বলেন, ‘মাশরাফির অভিজ্ঞতা ও বল হাতে দক্ষতা অন্য সবার চেয়ে ভিন্ন এবং অন্যদের চেয়ে ভাল। অভিজ্ঞতা তাকে এতো দূর এনেছে ঠিক তবে ফাস্ট বোলার হিসেবেও খুব ভালো সে। যদি ইনজুরিতে না পড়তো তাহলে হয়তো এখনো টেস্ট খেলতো সে। আমি যেদিন প্রথম দেখেছিলাম তাকে আমি বলেছিলাম যে সে টেস্ট ম্যাচ খেলার মতো অবস্থায় আছে। হয়তো ইনজুরির কারণেই সে সব ফরম্যাটে খেলতে পারছে না।’

এ সময় আগের অনেকবারের মতোই মাশরাফিকে তরুণদের জন্য উদাহরণ হিসেবে দাঁড় করান ওয়ালশ। মাশরাফির কাছে তার পারফরম্যান্সই যে ব্যক্তিগত আত্মসম্মান সেটিও মনে করিয়ে দেন ওয়ালশ।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের হয়ে বিগত বছরগুলোতে মাশরাফিই সেরা পেসার। এখন তরুণদেরও মাশরাফির মতো ক্ষুধাটা দেখানোর পালা। কোচেরা মাঠের বাইরে থেকে যতটা করতে পারে আমরা তার পুরোটাই করি। তরুণদের পারফর্ম করার ইচ্ছা থাকতে হবে। নিজের পারফরম্যান্সকে আত্মসম্মান হিসেবে দেখেন মাশরাফি। এটাই পার্থক্য গড়ে দেয়। সে ভালো করতে চায়, লড়াই করতে চায়। আমাদের এটিই প্রয়োজন।’