১৯ সেপ্টেম্বর দুবাইয়ে মুখোমুখি হচ্ছে ভারত-পাকিস্তান

Loading...

স্পোর্টস ডেস্ক: ১৯ সেপ্টেম্বর দুবাইয়ে মুখোমুখি হচ্ছে ভারত-পাকিস্তান। আরেকটি রোমাঞ্চকর লড়াই দেখার অপেক্ষায় ক্রিকেটপ্রেমীরা। এ লড়াইয়ে পাকিস্তানি পেসার ইয়াসির আরাফাত দুটি জায়গায় এগিয়ে রাখছেন পাকিস্তানকে

ক্রিকেটে ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথ মানেই অন্যরকম রোমাঞ্চ, অন্যরকম উত্তেজনা। সাম্প্রতিক বছরগুলোয় দুই প্রতিবেশীর মুখোমুখি হওয়াটা অবশ্য অনিয়মিত ঘটনা। আইসিসি টুর্নামেন্টের সৌজন্যে ভারত-পাকিস্তান সর্বশেষ দ্বৈরথ দেখা গেছে গত বছরের জুনে চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে। গ্রুপ পর্বের ম্যাচ হারলেও ফাইনালে ভারতকে হারিয়ে শিরোপা জিতে নেয় পাকিস্তান। ৩ টেস্ট, ১১ ওয়ানডে ও ১৩ টি-টোয়েন্টি খেলা পাকিস্তানি পেসার ইয়াসির আরাফাতের বিশ্বাস, সেই ফাইনাল জয়ের আত্মবিশ্বাস থেকেই এবার এশিয়া কাপে ভারতের বিপক্ষে মনস্তাত্ত্বিক সুবিধা নেবে পাকিস্তান।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ছয় বছর আগে পাকিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করেছেন ইয়াসির আরাফাত। একটি পাকিস্তানি ওয়েবসাইটে লেখা নিজের কলামে এই পেসার বলতে চেয়েছেন, একে তো বিরাট কোহলি নেই, তার ওপর গত আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনালে হার—চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে পাকিস্তান মনস্তাত্ত্বিক সুবিধা পাবে, ‘১৯ সেপ্টেম্বর দুই দলের লড়াইটা অবশ্যই খুব চাপের হবে। গত চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে পাকিস্তান যেভাবে বড় ব্যবধানে ভারতকে হারিয়েছিল অবশ্যই সেটি তাদের মনস্তাত্ত্বিক সুবিধা দেবে। সব মিলিয়ে এটি একটি দুর্দান্ত, দেখার মতো ম্যাচ হবে। খেলোয়াড়দের জন্যও মনে রাখার মতো কিছু হবে।’

রোমাঞ্চকর ম্যাচের কথা বলছেন। তবে ইয়াসির মনে করেন, আরও একটি জায়গায় ভারত একটু পিছিয়ে থাকবে, ‘এটা গোপন কিছু নয় যে বিরাট কোহলি ভারতীয় দলকে ভীষণ শক্তিশালী করে। দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে যে সবচেয়ে বেশি চাপ নিতে পারে তার অনুপস্থিতি পাকিস্তানকে বেশ স্বস্তি দেবে। তবে সন্দেহ নয় এই ভারতীয় দলেও অনেক দুর্দান্ত খেলোয়াড় আছে যারা ম্যাচ বের করে নিতে পারে। আরব আমিরাতের কন্ডিশনে ভারতও মানিয়ে নিতে পারবে। তাদের ভালো স্পিনার আছে। বেশির ভাগ খেলোয়াড়ই অভিজ্ঞ। তার পরও বলতে হবে কোহলির অনুপস্থিতিতে ভারত একটু দুর্বল দল।’

দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর লড়াইটা হবে দুবাইয়ে, ১৯ সেপ্টেম্বর। আরেকটি ভারত-পাকিস্তানের লড়াই দেখতে তৈরি হতে পারে ক্রিকেটামোদী দর্শকেরা।-প্রথম আলো