Notunshokal.com
জাতীয়

দেশের অর্থনীতিতে প্রবাসীদের বিরাট অবদান রয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

আজকে সত্যি খুব আনন্দ লাগছে রিয়াদে আমাদের নিজেদের একটি ভবন হয়েছে। আজকে রিয়াদে বাংলাদেশের একটি নিজস্ব ভবন হয়েছে। এটি একটি বাংলাদেশ। এটি সত্যি আনন্দের। আমরা বহুদিন ধরে চেষ্টা করে যাচ্ছিলাম, যে দেশে বাংলাদেশ দূতাবাস হবে সেদেশে আমাদের নিজস্ব ভবন হবে।

জাতির জনক স্বপ্ন দেখেছিলেন সব দেশেই বাংলাদেশের একটি ভবন হবে। বাংলাদেশকে আন্তর্জাতিকভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য কাজ করে গেছেন জাতির পিতা। জাতির পিতা বেঁচে থাকলে আজ বাংলাদেশ আরও অনেকদুর এগিয়ে যেতো।  মুক্তিযোদ্ধের পর বাংলাদেশিরা মাথা উচু করে চলতো কিন্তু ১৯৭৫এর ১৫ আগস্টের পর সেটি হারিয়ে গেছে। সবসময় চেষ্টা করেছি বাংলাদেশের মানুষের জন্য কাজ করতে।

বুধবার বিকালে রিয়াদের কূটনৈতিক পাড়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসের নব নির্মিত চ্যান্সারী কমপ্লেক্সের কনফারেন্স হলে প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে দেয়া বক্তব্য প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতিতে প্রবাসীরা বিরাট বড় অবদান রেখে যাচ্ছেন। আমাদের প্রতিটি ক্ষেত্রে তাদের অবদান রেখে যাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধু সেটা স্বীকার করতেন বলতেন। স্বাধীন জাতি হিসাবে যাতে আমরা বিশ্ব দরবারে মাথা উচু করে দাড়াতে পারি সেই চেষ্টাই করে যাচ্ছি। যারা দেশের জন্য এতো কিছু করেন তাদের জন্য কিছু করাও আমাদের দায়িত্ব।

দেশের প্রায় ৯০ভাগ এলাকায় ব্রডব্যান্ড সংযোগ স্থাপন করতে সক্ষম হয়েছি। বঙ্গবন্ধু স্যাটালাইটের কাজ শুরু হলে সেটা শতভাগে উন্নীত হবে। ইন্টারনেটের কল্যাণে আজ বাংলাদেশের মানুষ ঘরে বসে হাট-বাজার করতে পারছেন।

তিনি বলেন, সৌদি বাদশাকে বাংলাদেশ সফরের আহ্বান জানিয়েছেন এবং সৌদি বাদশা দাওয়াত কবুল করেছেন। সৌদি আরবের সাথে বর্তমানে বাংলাদেশের অত্যান্ত সুসম্পর্ক বিরাজ করছে।

বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সরকারের ধারবাহিকতা বজায় রাখতে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ক্ষমতায় গিয়ে বেশ কিছু দেশে নিজস্ব ভবন নির্মাণ শুরু করেছিলাম কিন্তু সরকার পরিবর্তনের পর সেটা বন্ধ হয়ে যায়। ২০০৯সালে আমরা ক্ষমতায় এসে সেগুলো পুনরায় শুরু করেছি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী বলেন, আজকে সৌদি প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য একটি আনন্দময় দিন। ২০১০সালে প্রধানমন্ত্রীর সার্বিক নির্দেশনায় ভবন নির্মাণের কাজ হাতে নেয়া হয় আজ সেটা উদ্বোধন করা হয়েছে। এর মাধ্যমে প্রবাসীদের একটি স্বপ্ন পুরণ হয়েছে।

রাষ্ট্রদূতের বাসভবনের জমিও উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। সেখানেও খুব শীঘ্রই ভবন নির্মাণের কাজ শুরু হবে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

১৯৮৫সালে রিয়াদের কূটনৈতিক পাড়ায় বরাদ্ধ পাওয়া ৫বিঘা জমির উপর নির্মিত হয়েছে এই ভবন।

সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূ গোলাম মসিহ, প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী, দূতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ এবং প্রবাসী বাংলাদেশিরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত, অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেন ফরিদুর রেজা সাগর-ব্রাউনিয়া

Sheikh Anik

হঠাৎ কেঁপে উঠলো রাজধানীসহ গোটা দেশ

Syed Hasibul

স্বাধীনতার ৪৭ বছর পরেও ঢাকার রাস্তায় ইমার্জেন্সি লেন কেউ কল্পনাও করতে পারেনি

Syed Hasibul