খেলাধুলা

সেঞ্চুরি করা পর খুশী হয়ে সাংবাদিকদের যা বললেন সৌম্য সরকার

দলের জয়ে ভূমিকা রাখায় এবং সেঞ্চুরি পাওয়ায় উচ্ছ্বসিত সৌম্য সরকার। তবে সেঞ্চুরির কোনো পরিকল্পনা ছিল না তার।পরিকল্পনা ছিল ইনিংস বড় করার। ইনিংস শেষ করে আসার। জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ার তাড়না থেকে সেঞ্চুরি পেয়েছেন। ২২ গজে নিজেই নিজের পরীক্ষা নিয়েছেন। ম্যাচ শেষে নিজের ব্যাটিং পরিকল্পনা শুনিয়েছেন সংবাদমাধ্যমকে, ‘আমি খেলছিলাম জাতীয় লিগে।

সেখান থেকে এসে এখানে খেলা… এটা অন্য ফরম্যাটে ছিল। চেষ্টা ছিল উইকেটে থাকার। দেখতে চেয়েছিলাম কতক্ষণ উইকেটে থাকতে পারি। আজকে সুযোগই তেমন ছিল। লক্ষ্য খুব একটা বড় ছিল না। সেই চেষ্টাই করেছি, উইকেটে কতক্ষণ থাকতে পারি।’

‘রান করলে তো অবশ্যই সবার ভালো লাগে। তেমন কোনো চিন্তা করিনি। চেষ্টা করছি নিজেকে খুশি রাখার। অবশ্যই ভালো খেললে ভালো ভালো লাগে। চেষ্টা করেছি বেশি সময় ক্রিজে থেকে ব্যাটিং করার। সেই সুযোগে সেঞ্চুরিটি এসেছে। সেঞ্চুরি তো অবশ্যই স্পেশাল’ – যোগ করেন সৌম্য।

পূজোর ছুটি বাদ দিয়ে খুলনায় জাতীয় লিগ খেলছিলেন সৌম্য। বৃহস্পতিবার খেলা শেষে আজ বিকেএসপিতে খেললেন পঞ্চাশ ওভারের ম্যাচ। জাতীয় দল থেকে বাদ পড়ার পর বেশ মনোযোগী সৌম্য। ছুটি নিয়ে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানোর থেকে মাঠে ম্যাচ খেলাকে প্রাধান্য দিয়েছিলেন।

তাতেই মিলল সাফল্য। জাতীয় লিগে দুটি হাফ সেঞ্চুরির ইনিংস, বল হাতে ৫ উইকেট এবং এবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সেঞ্চুরি। সব মিলিয়ে দারুণ ছন্দে এ ক্রিকেটার। পারফরম্যান্সের জন্য ত্যাগ স্বীকার করায় কোনো আক্ষেপ নেই তার।

‘কিছু একটা ত্যাগ করে কিছু একটা পাওয়া তো অবশ্যই স্পেশাল। শারীরিক দিক থেকে একটু কঠিন ছিল। মানসিক দিক থেকে অন্যভাবে প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। খেলতেই যেহেতু হবে ওইভাবে না ভেবে রাতের মধ্যে যতটুকু সম্ভব রিকভারি করে খেলা যায়। সকাল বেলায়ও একটা ভ্রমণ ছিল। সে সব মাথায় না নিয়ে চেষ্টা করেছি যতটা স্বাভাবিক খেলা যায়। যতক্ষণ সুস্থ থাকব বা শরীর পারমিট করবে প্রপার ক্রিকেট খেলব’- বলেছেন সৌম্য।