আন্তর্জাতিক

আগুন থেকে খানিকটা দূরে পায়ে হেঁটে সামনের দিক এগিয়ে আসছেন এক নারী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: দাউদাউ করে আগুন জ্বলছে। বেরিয়ে আসছে কালো ধোঁয়া। আগুন থেকে খানিকটা দূরে পায়ে হেঁটে সামনের দিক এগিয়ে আসছেন এক নারী। মনে হচ্ছে, সবকিছু জ্বালিয়ে-পুড়িয়ে ছাই করে তিনি সেখান থেকে বেরিয়ে আসছেন। ঠিক যেন সিনেমার গল্পের মতো। তবে শুধু এই একটিই নয়, এরকমই আরও বেশ কিছু ছবি ইতোমধ্যে নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয়ে পড়েছে।

এ সব ছবিতে নারীদের প্রত্যেকের মাথায় হিজাব, গায়ে খাঁকি উর্দি। সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন হু হু করে ছড়াচ্ছে এই ছবি। কোনও ছবিতে আবার দেখা যাচ্ছে, রাইফেল হাতে আগুনের সামনে দাঁড়িয়ে আছেন এক নারী উর্দিধারী। কোনওটায় ঝাঁ চকচকে রোদচশমা পরে একাই সেলফি তুলছেন এক নারী। পাকিস্তান সরকারের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট টুইটারে শেয়ার করা এমন বেশ কয়েকটি ছবি নিয়েই এখন মাতামাতি নেট দুনিয়ায়।

ছবিতে যাদের দেখা যাচ্ছে তারা আসলে পাকিস্তানের ‘অ্যান্টি নারকোটিকস ফোর্স’ (এএনএফ)-এর নারী কর্মকর্তা।সম্প্রতি দেশটির পেশোয়ারে বাজেয়াপ্ত হওয়া প্রায় ৪০০ কেজি অবৈধ মাদক পুড়িয়ে ফেলে এএনএফ। সেই মাদক পোড়ানোর সময়ই ছবিগুলি তুলেছেন এএনএফ বাহিনীর নারী সদস্যেরা। পরে সেগুলিই ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। অজস্র প্রশংসাসূচক মন্তব্যে জমেছে। কেউ লিখেছেন, ‘‘এর থেকেই বোঝা যায় পাকিস্তানের নারীরা এখন আর পর্দার আড়ালে নেই। তাঁদের কতটা ক্ষমতায়ন হয়েছে।’’

একটি বিবৃতিতে এএনএফের ডিজি মুসারত নওয়াজ মালিক জানিয়েছেন, পাকিস্তানের যুব সমাজকে নেশামুক্ত করার উদ্দেশ্যেই কয়েক সপ্তাহ ধরে মাদক বিরোধী অভিযান চালায় তাঁর বাহিনী। উদ্ধার হওয়া মাদক পরে প্রথা মতো পুড়িয়ে ফেলা হয়।