খেলাধুলা

টি-টেন ক্রিকেট লিগ খেলার অনুমতি পাচ্ছে সাকিব আল হাসান

অবশেষে দীর্ঘদিন পর ক্রিকেট মাঠে নামছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। জাতীয় দলের হয়ে না হলেও সংযুক্ত আরব আমিরাতে টি-টেন ক্রিকেট লিগে খেলার অনুমতি পাচ্ছেন সাকিব।তবে তার জন্য সাকিব আল হাসানকে শর্ত জুড়ে দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি।

টি টেন ক্রিকেট লীগে খেলতে হলে পুরোপুরি ফিট থাকতে হবে সাকিব আল হাসানকে। আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই বলেছেন বোর্ডের পরিচালনা প্রধান আকরাম খান।

আকরাম বলেন, ‘একটা মেডিক্যাল রিপোর্ট দেবে। ওটা পজেটিভ থাকলে ওকে আমরা অনাপত্তিপত্র দিয়ে দিচ্ছি। ওর এনওসি ইতিবাচক আছে। ওর যেটা হয়েছে ও তো একবছরের মধ্যে অপারেশন করতে পারবে না এবং ওর ব্যথা ও নেই। মেডিক্যালি যদি ফিট থাকে তাহলে ও খেলতে পারবে। না হলে নয়।’

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ১৯ ডিসেম্বর থেকে ২০১৯ সালের জানুয়ারির ১১ তারিখ পর্যন্ত আবুধাবি, দুবাই ও শারজায় অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি লিগে অংশ নিতে চেয়ে বিসিবি বরাবর অনাপত্তিপত্র চেয়ে আবেদন করেছিলেন সাকিব। কিন্তু তার আবেদনের প্রেক্ষিতে তাৎক্ষণিক সাড়া দেয়নি বাংলাদেশ ক্রিকেটের সর্বোচ্চ এই সংস্থাটি।

চলতি বছেরের শুরুতে বাঁহাতের কনিষ্ঠায় পাওয়া চোট এখনও তিনি পুরোপুরি কাটিয়ে উঠতে পারেননি। ফলে ঘরের মাঠে চলমান জিম্বাবুয়ে সিরিজে তাকে থাকতে হয়েছে দলের বাইরে।

মেলবোর্নের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডেভিড হয়কে দেখিয়ে দেশে ফিরে সংবাদ মাধ্যমকে যা বলেছেন তাতে তার আঙুলের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে থাকলে আগামী এক মাসের মধ্যেই তিনি মাঠে নামতে পারবেন। সেটা না হলে কো কারণে ব্যথা ফিরলে অস্ত্রপচার করতেই হবে। সেজন্য তাকে অপেক্ষা করতে হবে নুন্যতম ৬ মাস,  একবছরও লাগতে পারে।