Notunshokal.com
খেলাধুলা

এই লজ্জার হার অনেক গুলো প্রশ্নের মুখোমুখি দাড় করিয়ে দেয় বাংলাদেশের নির্বাচকদের

স্পোর্টস ডেস্ক:  জিম্বাবুয়ের দেয়া ৩২১ রানের টার্গেটে ব্যাটিং করতে নেমে ১৬৯ রানেই অল আউট হয়েছে বাংলাদেশ। ১৫১ রানের এই লজ্জার হার অনেক গুলো প্রশ্নের মুখোমুখি দাড় করিয়ে দেয় বাংলাদেশের নির্বাচকদের। সেটা হলো, যারা ওয়ানডে এবং টি-টুয়েন্টি ভালো করে তাদেরই কেন টেষ্ট খেলতে নামিয়ে দেয়া হয়?

লিটন দাস, ইমরুল কায়েস, রিয়াদ, মুশফিকরা বাংলাদেশের ব্যাটিং স্তম্ভ। ওয়ানডে ম্যাচে আপনি তাদের ছাড়া বাংলাদেশের একাদশ কল্পনাও করতে পারবেন না। কিন্তু টেষ্ট ক্রিকেট যখন আসে তখন একেবারেই তা ওয়ানডে ক্রিকেটের বিপরীত এবং তখন নতুন করে অবশ্যই চিন্তা ভাবনা করতে হয়।

লিটন দাস আউট হয়েছেন রেজার বলে এলবি হয়ে। অফ স্টাম্প থেকে সরে গিয়ে জায়গা বানিয়ে লেগে লেগে খেলতে চেয়েছিলেন লিটন দাস। কিছু সময়ের জন্য তখন মনে হয়েছিল বাংলাদেশের অল্প বলে বেশি রানের প্রয়োজন। তাই সে এমন শট খেলতে গিয়েছিল।

এরপর আউট হলেন মুমিনুল হক। তার আউটের ধরন দেখে মনে হল বলটিকেই তিনি বুঝতে পারেননি। অফস্টাম্পের বাইরের বল ব্যাটে লাগিয়ে ভেতরে এনে বোল্ড হয়েছেন।

এরপর আউট হন ইমরুল কায়েস। তিনি লেগে সুইপ করতে গিয়ে আউট হন। অনেক দূর এখনো যেতে হবে বাংলাদেশকে। এটা টেষ্ট ম্যাচ। তাছাড়া রেজার বলে বার কয়েক খুব কাছ থেকে বেঁচে গেছেন কায়েস। সেই রেজার বলেই হঠাৎ সুইপের কি প্রয়োজন ছিল?

এরপর আউট হলেন ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তার কাধে অনেক দায়িত্ব। দলের তখন তিনটি উইকেট হারিয়েছে। এমন মুহুর্তে তার উচিত ছিল উইকেটে টিকে থাকা। কিন্তু সেটা না করে হাটু ভেঙে শট খেলতে গিয়েছিলেন তিনি। মনে হল তার টার্গেটই বাউন্ডারি।

আউট হলেন নাজমুল হাসান শান্ত। তিনিও আউট হলেন শট খেলতে গিয়ে। মুশফিকও আউট হলেন একই ভাবে। দলের ১১ জনের মধ্য যখন টপ ৬জন খেলোয়ার আ্পনার এভাবেই আউট হয় তখন আপনাকে অবশ্যই আরও কিছু ভাবার থাকে।

লিটন দাস ঘরোয়া ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরী করেছে টেষ্টে। কিন্তু ঘরোয়া ক্রিকেট এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের মধ্যে ব্যাপক পার্থক্য নির্বাচক হিসেবে সেটা আপনাদের বুঝতে হবে। যদি শেবাগের মত কাউকে ওপেনিংয়ে প্রয়োজনই হয় তাহলে তাকে সেভাবে তৈরি করে নিয়ে যান। হুট করেই তো নামিয়ে দেয়া যায় না।

ভারতের মিডলঅর্ডারের দারুন ব্যাটসম্যান আম্বাতি রাইডু টেষ্ট খেলতেই পারলো না। কিন্তু বাংলাদেশে হলে অনেক আগেই তাকে হয়তো অভিষেক করিয়ে দিত।

টেষ্ট ক্রিকেটে ভালো কিছু করতে চাইলে এবং একই সাথে ওয়ানডে ও টুয়েন্টিতেও ভালো করতে চাইলে অবশ্যই কিছু তারকা তৈরি করা উচিত যারা ভিন্ন ভিন্ন ফরমেটে হবে স্পেশালিষ্ট।

আরও পড়ুন

হ্যামিল্টন মাসাকাদজা অাউট। জিম্বাবুয়ের তৃতীয় উইকেটের পতন

হ্যাটট্রিক করে বিশ্বকাপের মিশন শুরু করলেন মেসি। দেখুন আজকের ম্যাচে মেসির হ্যাটট্রিকের ভিডিও

হ্যাটট্রিক করলো চেলসি

Syed Hasibul