Notunshokal.com
জাতীয়

‘ড. কামাল হোসেন’ রাজশাহীর জনসভায় যাচ্ছেন না

নিউজ ডেস্ক: প্রচণ্ড  জ্বরে আক্রান্ত ঐক্যফ্রন্ট নেতা কামাল হোসেন রাজশাহীতে জোটের বিভাগীয় জনসভায় যোগ দিচ্ছেন না।  বৃহস্পতিবার রাত থেকে তিনি জ্বরে আক্রান্ত হন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মিডিয়া সমন্বয়ক অ্যাডভোকেট লুৎফুল কবির হামিম শুক্রবার সকালে বলেন, স্যার গত রাত থেকে প্রচণ্ড জ্বরে আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। সেজন্য আজকে রাজশাহীর জনসভায় তিনি যেতে পারছেন না।

এদিকে রাজশাহীতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জনসভা আজ দুপুর দুইটা থেকে শুরু হবে। এ উপলক্ষে সকল ধরনের প্রস্তুতি সম্পূর্ণ হয়েছে।
রাজশাহীর ঐতিহাসিক মাদরাসা ময়দানে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া জনসভাকে ঘিরে বিভাগীয় শহর রাজশাহীতে আসতে শুরু করেছে বিভিন্ন জেলার মানুষ।

আজকের জনসভায় বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনুর সভাপতিত্বে  প্রধান বক্তা হিসেবে থাকবেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীর।

এছাড়াও উপস্থিত থাকবেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা মাহমুদুর রহমান মান্না, আ. স. ম আব্দুর রব, কর্নেল অলি আহমেদ, আন্দালিব রহমান পার্থ, মির্জা আব্বাস ও গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

ইতোমধ্যে মাদ্রাসা মাঠে মঞ্চ তৈরিসহ অন্যান্য প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। সেখানে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে কয়েকটি ডিজিটাল ব্যানারও দেখা গেছে। পুলিশ ১২টি শর্তে এই মাঠে সমাবেশ করার অনুমতি দিয়েছে ঐক্যফ্রন্টকে।

এরইমধ্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির নেতাদের নিয়ে সকালে আকাশপথে রাজশাহীতে পৌঁছেছেন মির্জা ফখরুল। এই জনসভায় ‘ব্যাপক জনসমাগম’ ঘটবে বলে বিএনপি নেতারা আশা করছেন।

এদিকে ঐক্যফ্রন্টের এই সমাবেশকে কেন্দ্র করে রাজশাহী নগরীর নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। পুলিশ কমিশনার ইফতেখায়ের আলম বলেছেন, কোনও ধরনের ‘অপ্রীতিকর’ পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ প্রস্তুত আছে।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপে সাত দফার মূল দাবিগুলো নিয়ে সমঝোতা না হওয়ায় রোডমার্চ করে রাজশাহীর সমাবেশে যাওয়ার কর্মসূচি দিয়েছিলেন মির্জা ফখরুল। তবে পরে রোডমার্চ স্থগিত করে কেবল জনসভা করার ঘোষণা দেয়া হয়।

এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিয়ে একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা। সেখানে ভোটগ্রহণের জন্য ২৩ ডিসেম্বর দিন রাখা হয়।

সমঝোতার আগে তফসিল ঘোষণা না করার দাবি জানিয়ে আসা ঐক্যফ্রন্ট নেতা মির্জা ফখরুল বৃহস্পতিবার রাতে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এই তফসিলে সরকারের ইচ্ছারই প্রতিফলন ঘটেছে।

আরও পড়ুন

হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত, অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেন ফরিদুর রেজা সাগর-ব্রাউনিয়া

Sheikh Anik

হঠাৎ কেঁপে উঠলো রাজধানীসহ গোটা দেশ

Syed Hasibul

স্বাধীনতার ৪৭ বছর পরেও ঢাকার রাস্তায় ইমার্জেন্সি লেন কেউ কল্পনাও করতে পারেনি

Syed Hasibul