Notunshokal.com
খেলাধুলা

লিটন-সৌম্যদের কত সুযোগ দিল, তুষার-নাঈমদের নয় কেন?

ঘরোয়া লিগে বাংলাদেশের অনেক তারকা আছে যারা নিয়মিতই ভালো খেলছে টেষ্টে। কিন্তু তারা জাতীয় দলে নির্বাচকদের চোখে অবিশ্বাস্য ভাবে পড়ছে না। নির্বাচকরা যেন তাদের দেখেও দেখছে না। অনেকাটি্ তাদের পাশ কাটিয়ে যাওয়ার মত।

এবারের জাতীয় লিগেও পরিচিত কিছু তারকা বেশ ভালো পারফর্ম করেছে। তাদের মধ্যে আছে তুষার ইমরান, নাঈম ইসলামরা। কিন্তু জাতীয় দলের দরজা যেন তাদের জন্য বন্ধ।

বাংলাদেশ দলের একটা পুরোনো স্বভাব হলো, যারা ওয়ানডেতে ভালো করে, তারাই টুয়েন্টিতে খেলে এবং তারাই টেষ্ট। এবার তিন ফরমেটে তাদের পারফর্মেন্স যেমনই হোক খেলবে তারাই। কিন্তু কয়েকজন আলাদা তারকা প্রতিটা ফরমেটের জন্য তৈরি করতে পারলে যে দলের জন্য কতটা ভালো সেটার গুরত্বটা যেন তারা বুঝতেই পারছে না।

অনেকেই এখানে প্রশ্ন তুলতে পারে, ঘরোয়া লিগে পারফর্ম করে এসে তো জাতীয় দলে পাড়েনা। জাতীয় দলে ঠিকই তারা ব্যর্থ হয়।

বাংলাদেশ দলে লিটন দাসকে অনেক সুযোগ দেয়া হয়েছে তার ফর্মে ফেরার জন্য। অবশেষে সে নিজেকে প্রমান করেছে। মিঠুনকেও সুযোগ দিয়েছে। সে প্রমান করেছে। সৌম্যকে একের পর এক সুযোগ দিয়েই গেছে। শেষে সেও নিজেকে প্রমান করেছে। নাজমুল হোসেন শান্ত সুযোগ পেয়েছে বেশ কয়েকবার। কিন্তু তাহলে কেন তুষার ইমরান, নাঈমদের এক-দুই ম্যাচ দিয়ে হিসাব করা হবে? তাদেরও জাতীয় দলে নিজেকে প্রমানের জন্য সুযোগ দিলে তারাও নিজেদের প্রমান করতে পারবে। কেননা, তারা জানে টেষ্ট কিভাবে খেলতে হয়। হয়তো ঘরোয়া লিগ থেকে জাতীয় দলে এসেই খারাপ হবে ১-২ ম্যাচ। কিন্তু তৃতীয় ম্যাচ থেকে ঠিকই তারা নিজেদের মেলে ধরতে পারবে।

আরও পড়ুন

হ্যামিল্টন মাসাকাদজা অাউট। জিম্বাবুয়ের তৃতীয় উইকেটের পতন

হ্যাটট্রিক করে বিশ্বকাপের মিশন শুরু করলেন মেসি। দেখুন আজকের ম্যাচে মেসির হ্যাটট্রিকের ভিডিও

হ্যাটট্রিক করলো চেলসি

Syed Hasibul