খেলাধুলা

তৃতীয় দিনশেষে ৯ উইকেট হারিয়ে ৩০৪ রান সংগ্রহ করেছে জিম্বাবুয়ে।

৫২২ রান করে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ দল। জবাবে গতকাল ২৫ রানের মধ্যেই এক উইকেট হারিয়ে দিন শেষ করে জিম্বাবুয়ে। ২৫ রানে এক উইকেট হারিয়ে আজ তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করেছে জিম্বাবুয়ে দল। প্রথমে কিছুটা দেখেশুনে খেললেও দলীয় ৪০ রানের মাথায় তাইজুল ইসলামের বলে দিনের প্রথম উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে।

ডোনাল্ড তিরিপানো স্লিপে দাঁড়িয়ে থাকা মেহেদী হাসান মিরাজের হাতে ক্যাচ দিয়ে ৮ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। এর পরে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তোলেন ব্রায়ান চারি। একাধিকবার জীবন পেয়ে দলীয় ৯৬ রানের মাথায় ৫৩ রান করে মেহেদী হাসান মিরাজের বলে মমিনুল হকের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন ব্রায়ান চারি।

এর পরের দুইটি উইকেট ও তুলে নেন তাইজুল ইসলাম। দলীয় ১২৯ রানের মাথায় সেন উইলিয়ামসন এবং ১৩১ রানের মাথায় সেকেন্দার রাজাকে বোল্ড করেন তাইজুল ইসলাম। এরপর বড় রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন পিটার মুর এবং ব্রেন্ডন টেইলর।

এই দুজনের ১৩৯ রানের পার্টনারশিপ ভাঙেন আরিফুল হক। ৮৩ রান করে আরিফুলের শিকার হন পিটার মুর।তবে অন্য প্রান্ত থেকে সেঞ্চুরি তুলে নেন টেইলর। ১১০ রান করার টেইলরকে আউট করেন মেহেদী হাসান মিরাজ। একই ওভারে তিনি তুলে নেন আরো একটি উইকেট। ব্রান্ডন মাভুতাকে আউট করেন তিনি। দিনের শেষ ওভারে উইকেট তুলে নিয়ে প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট পেলেন তাজুল ইসলাম।

প্রথম ইনিংসে তৃতীয় দিন শেষে ৯ উইকেটে ৩০৪ রান সংগ্রহ করেছে জিম্বাবুয়ে দল।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই টপা টপ উইকেট হারাতে থাকে বাংলাদেশ দল। দলীয় ১৩ রানের মাথায় প্রথম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ওপেনার ইমরুল কায়েস শূন্য রানেই উইকেটকিপার হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। ইমরুল কায়েসের উইকেটটি তুলে নেন কাইল জারভিস।

এরপরেই ফিরে যান লিটন দাস। ৯ রান করে কাইল জারভিস বলে আউট হন তিনি। আর অভিষেক ম্যাচেই শূন্য রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন মোহাম্মদ মিঠুন। ২৬ রানে তিন উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়া বাংলাদেশ দলকে টেনে তুলেন মুশফিকুর রহিম এবং মমিনুল হক। ফিফটি পর কিছুটা ওয়ানডে স্টাইলে খেলতে থাকেন এই দুই ব্যাটসম্যান।

১৫০ বলে ক্যারিয়ারের সপ্তম সেঞ্চুরি তুলে নেন মমিনুল। অন্য প্রান্ত থেকে ১৮৬ বলে ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ সেঞ্চুরি তুলে নেন মুশফিকুর রহিম। ১৬১ রান করে অাউট হন মমিনুল হক। এরপরেই অাউট হন তাইজুল ইমলাম।

দ্বিতীয় দিনে ব্যাট করতে নেমে চমৎকার শুরু করেন অপরাজিত দুই ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। প্রথম সেশন কাটিয়ে দেন এই দুই ব্যাটসম্যান। তবে লাঞ্চ থেকে ফিরেই প্যাভিলিয়নে ফিরে যান মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। দুর্দান্ত খেলতে থাকা এই ব্যাটসম্যানকে আউট করেন কাইল জারভিস।

দলীয় ৩৭২ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ৩৬ রান করে উইকেট কিপারের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। মুশফিকুর রহিমকে বেশি সময় দিতে পারেননি আরিফুল হক। ৪ রান করে কাইল জারভিস এর পঞ্চম শিকার হন তিনি।

এরপর এই মেহেদী হাসান মিরাজ কে সাথে নিয়ে বড় জুটি গড়ে তোলেন মুশফিকুর রহিম। ৭ উইকেট হারিয়ে ৫২২ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ। মুশফিকুর রহিম ২১৯ এবং মেহেদি হাসান মিরাজ ৬৮ রানে অপরাজিত ছিলেন।

বাংলাদেশ একাদশ: মাহমুদউল্লাহ, ইমরুল কায়েস, লিটন দাস, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, সৈয়দ খালেদ আহমে

টেস্ট স্কোয়াড: হ্যামিলটন মাসাকাদজা (অধিনায়ক), ব্রায়ান চারি, ক্রেইগ আরভিন, ব্রেন্ডন টেইলর, শন উইলিয়ামস, পিটার মুর, রেজিস চাকাভা, ডোনাল্ড তিরিপানো, কাইল জারভিস, ব্রান্ডন মাভুতা, রিচার্ড এনগারাভা, জন নায়ুম্বু, ওয়েলিংটন মাসাকাদজা, রায়ান বার্ল, টেন্ডাই সাতারা।

আরও পড়ুন

হ্যামিল্টন মাসাকাদজা অাউট। জিম্বাবুয়ের তৃতীয় উইকেটের পতন

হ্যাটট্রিক করে বিশ্বকাপের মিশন শুরু করলেন মেসি। দেখুন আজকের ম্যাচে মেসির হ্যাটট্রিকের ভিডিও

হ্যাটট্রিক করলো চেলসি

Syed Hasibul