বিনোদন

সিনেমার নামে উগ্র হিন্দুত্ববাদ প্রচারের ষড়যন্ত্রকারী চলচ্চিত্র অভিনেত্রী জয়া আহসান গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছে আওয়ামী ওলামা লীগ

বিনোদন ডেস্ক : কয়েকদিন আগে মুক্তিপ্রাপ্ত দেবী সিনেমার নামে উগ্র হিন্দুত্ববাদ প্রচারের ষড়যন্ত্রকারী চলচ্চিত্র অভিনেত্রী জয়া আহসান গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছে আওয়ামী ওলামা লীগ। মঙ্গলবার (১৩ নভেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে এ দাবি জানান সংগঠনটির সভাপতি আলহাজ্ব মাওলানা আখতার হোসাইন বুখারী।

তি‌নি বলেছেন, ‘দেবী সিনেমার নামে উগ্র হিন্দুত্ববাদ প্রচারের ষড়যন্ত্রকারী অভি‌নেত্রী জয়া আহসানকে গ্রেফতার করতে হবে। এর পূর্বে জান্নাত সিনেমার মাধ্যমে এসএস মাল্টিমিডিয়া, বস-২ সিনেমার মাধ্যমে জাজ মাল্টিমিডিয়া মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করেছে। অবিলম্বে উস্কানিমূলক এসব সিনেমা নিষিদ্ধ করে প্রযোজক, পরিচালকদের গ্রেফতার করে কঠোর শাস্তি দিতে হবে।’

বুখারী বলেন, ‘আসন্ন নির্বাচনে উগ্র হিন্দুত্ববাদী দলগুলোকে ৩০ শতাংশ আসন দেয়ার উদ্ভট দাবি উত্থাপনকারী ঘৃণ্য সাম্প্রদায়িক ষড়যন্ত্রকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। উগ্র সাম্প্রদায়িক হিন্দুদের কোনো আসন বরাদ্দ দিলে ওলামা লীগসহ স্বাধীনতার চেতনায় বিশ্বাসী ইসলামী দলগুলোকেও সংসদে কমপক্ষে ১০০ আসন দিতে হবে।’

তি‌নি আরও ব‌লেন, ‘হযরত মুহাম্মদ (স.) এর মুবারক শানে মানহানিকর বক্তব্য, লেখা, প্রকাশনা, টিভি প্রোগ্রাম, রেডিও প্রোগ্রাম, ইন্টারনেটে স্ট্যাটাসসহ যেকোন বিষয় প্রচার, প্রকাশ ও প্রদানকারীর শাস্তি মৃত্যুদণ্ড দিতে হবে এবং শাস্তি কার্যকরে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।’

তি‌নি ব‌লেন, পবিত্র সাইয়্যিদুল আইয়াদ শরীফ, পবিত্র শবে বরাত, পবিত্র মিলাদ শরীফ ও ক্বিয়াম শরীফ এবং মাজার শরীফ জিয়ারত বিরোধীতাকারী সব ওহাবী, সালাফী তথা তেতুল হুযুর খ্যাত আহমদ শফি মার্কা হেফাজতীদের রাষ্ট্রদ্রোহী আইনে গ্রেফতার করতে হবে কারণ সংবিধানে রাষ্ট্র দ্বীন পবিত্র দ্বীন ইসলাম আর পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার মধ্যে পবিত্র ঈদে মীলাদে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পালন করা ফরজ। অথচ এরা পবিত্র মিলাদ শরীফ, পবিত্র ঈদে মিলাদে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বিরোধী। এরা সরকারের কখনো হিতাকাঙ্ক্ষী হতে পারে না। এরা জাতীয় বেইমান। এরা কখনো নৌকায় ভোট দিবে না। এদের মুখে এক, অন্তরে ভিন্ন আর শেখ হাসিনা তথা আওয়ামী লীগ হেফাজতীদের ভোট গণনায়ও ধরে না।’

মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন সংগঠ‌নের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব কাজী মাওলানা মুহম্মদ আবুল হাসান শেখ শরীয়তপুরী, সম্মিলিত ইসলামী গবেষণা পরিষদের সভাপতি আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা মুহম্মদ আব্দুস সাত্তার, সহ-সভাপতি- মাওলানা মুহম্মদ শোয়েব আহমেদ গোপালগঞ্জী, সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুল জলিল প্রমুখ।