খেলাধুলা

নিজের অবসরের নিয়ে যা বললের মাশরাফি

টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নেননি, কিন্তু হাঁটুতে সাত অস্ত্রোপচারের ধকলে টেস্ট খেলছেন না ২০০৯ সাল থেকে। কিছুটা মান-অভিমান মিশিয়ে গত বছরের এপ্রিলে অবসর নিয়েছেন টি-টোয়েন্টি থেকে। মাশরাফি বিন মর্তুজাকে এখন শুধু ওয়ানডে দলেই দেখা যায়।

mashrafe bin mortaza photo

গত বিশ্বকাপের আগ মুহুর্তে হঠাৎ রঙিন পোশাকের ক্রিকেটে জাতীয় দলের অধিনায়কত্ব পেয়েছিলেন। তাকে অধিনায়কত্ব দেওয়ার সময় বোর্ডের ভাবনা ছিল, মাশরাফি যতোদিন পারে করুক, এর মধ্যে উপযুক্ত কাউকে খুঁজে বের করতে হবে। হাঁটুতে সাতটি অস্ত্রোপচারের কারণেই হয়তো বোর্ডের এমন ভাবনা ছিলো।

কিন্তু সাত অস্ত্রোপচার নিয়ে এখন অবধি চালিয়েই নিচ্ছেন মাশরাফি। প্রশ্ন হচ্ছে, এই যাত্রা থামবে কোথায়? ক্রিকেট পাড়ায় গুঞ্জন হচ্ছে, আগামী মে মাসে শুরু হতে যাওয়া ওয়ানডে বিশ্বকাপ পর্যন্ত খেলে যাওয়ার লক্ষ্য ঠিক করেছেন মাশরাফি। ক্রিকেটের বাইরের এক ঘটনায় এখন মনে হচ্ছে, সেই গুঞ্জনই সত্যি।

masrafe al

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার জন্য কদিন আগে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের সবুজ সংকেতের পরই মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন তিনি। অর্থাৎ দলের পক্ষ থেকে তাকে মনোনীত করার সম্ভাবনা প্রায় শতভাগ। তার মানে সব ঠিক থাকলে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন মাশরাফি।

এদিকে, বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন একদিন আগে বলেছেন, অবসরের পরের সময়টা যেন কাজে লাগে সেই চিন্তাতেই নাকি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন মাশরাফি! বিশ্বকাপ শুরু হবে ৩০ মে, শেষ হওয়ার কথা ১৪ জুন। পাপনের মতে, নির্বাচন করলে তারপরের সময়টাতে রাজনীতিবিদ হয়ে ক্রীড়াক্ষেত্রে অবদান রাখতে পারবেন মাশরাফি। তার মানে দাঁড়াচ্ছে, মাশরাফি বিশ্বকাপের পর অবসর নিচ্ছেন এটা পরিষ্কার।

কাল মিরপুর টেস্ট শেষে পাপন বলেন, ‘ওর (মাশরাফি) যে শারীরিক অবস্থা, এখনো যে খেলছে, এটাই তো অনেক। সে খেলোয়াড় হিসেবে খেলে না, আমাদের দলে অধিনায়ক হিসেবে খেলে। ওর অধিনায়কত্ব আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। ওর মতো অধিনায়ক খুঁজে পাচ্ছি না, পাব বলেও মনে হয় না। সেদিক দিয়ে চিন্তা করলে বড়জোর বিশ্বকাপের পর অবসরে যাবে। সেটি যদি হয় মাত্র কয়েক মাসের ব্যাপার, তাহলে এর চেয়ে ভালো প্রস্থান আর কিছু হতে পারে না। কয়েক মাস পর অবসর নিলে সে এই সাড়ে চার বছর আর করবেটা কী? আরেকটি (রাজনীতি) ক্ষেত্রে সে থাকল, সেখান থেকে সে ক্রীড়াক্ষেত্রে জোরালো অবস্থান রাখতে পারবে বলেই আমার বিশ্বাস।’