Notunshokal.com
ধর্ম

আগামীকাল পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)

আগামীকাল ২১ নভেম্বর বুধবার ১২ রবিউল আউয়াল পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী। এ সময় মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর জন্ম ও মৃত্যু দিবস। এদিকে ৫৭০ খৃস্টাব্দের এ দিনে মক্কায় জন্মগ্রহণ করেন তিনি আর ৬৩২ খৃস্টাব্দে একই দিনে ইহকাল ত্যাগ করেন।

তাছাড়া আইয়ামে জাহেলিয়াতের অন্ধকার দূর করতে এই দিনে তৌহিদের মহান বাণী নিয়ে এসেছিলেন এ মহামানব। বিশ্বের মুসলিম সম্প্রদায়সহ শান্তিকামী প্রত্যেক মানুষের কাছে দিনটি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ।

এদিকে চৌদ্দশ বছর আগে বারোই রবিউল আউয়াল আরবের মরু প্রান্তরে মক্কায় কুরাইশ বংশে মা আমিনার কোল আলোকিত করে জন্ম নিয়েছিলেন মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)। আইয়্যামে জাহেলিয়াতের অন্ধকার দূর করে তৌহিদের মহান বাণী নিয়ে আলোর দিশারী হিসেবে এসেছিলেন মহানবী।

এসময় আমাদের প্রিয় নবী (সা.)-এর আবির্ভাব ও ইসলামের শান্তির বাণীর প্রচার সারাবিশ্বে আলোড়ন তুলেছিল। সেই মহামানবের জন্ম ও ওফাত দিবস ১২ রবিউল আউয়াল মুসলমানদের কাছে এক পবিত্র দিন। দিনটি পবিত্র ঈদের মিলাদুন্নবী হিসেবে পালন করেন।

আমাদের প্রিয় নবী (সা.) ৪০ বছর বয়সে নবুয়তপ্রাপ্ত হয়ে মানবজাতিকে কুসংস্কার-গোঁড়ামি থেকে শান্তি ও মুক্তির পথে আহ্বান করেছিলেন। প্রচার করেন শান্তির ধর্ম ইসলাম। ৬৩ বছরে দেহত্যাগের আগ পর্যন্ত দীর্ঘ ২৩ বছর শান্তির বার্তাই ছড়িয়ে গেছেন সারাবিশ্বে।

আর আমাদের ইসলাম ধর্মমতে, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মহামানব, নবুয়তের শেষ এই নবী। মহানবী (সাঃ)-এর দেখানো পথ ও আদর্শ অনুসরণেই নিহিত মানবজাতির অফুরন্ত কল্যাণ।

আরও পড়ুন

স্বামীর পায়ের নিচে স্ত্রীর বেহেশত’- এটি কি হাদিস?

Adnan Opu

সৌদিতে কোরআন প্রতিযোগিতায় বিশ্বে প্রথম বাংলাদেশের তারেক মনোয়ার

Adnan Opu

সৌদি আরবে ২৫ দিনে ৩২ বাংলাদেশি হাজির মৃত্যু