খেলাধুলা

প্রত্যেক বাবার স্বপ্ন থাকে ছেলের সাফল্য দেখার। আজ আমি দেখলাম : নাঈম হাসানের বাবা

এমএ আজিজ স্টেডিয়ামের আউটারে অনুশীলন করতে করতেই অনূর্ধ্ব-১৪ দলে জায়গা করে নেন নাঈম। ২০১৩ সালে চট্টগ্রামের অনূর্ধ্ব-১৪ জেলা দলের হয়ে খেলে প্রথম লাইমলাইটে আসেন। কিন্তু বিভাগীয় দলে সুযোগ মিলেনি। দুই বছর পর জেলা দলের হয়ে ২০৬ রান ও ১১ উইকেট নিয়ে বিভাগীয় দলে আসেন এ স্পিনার।

এরপর বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ১৯ দলের হয়ে বিশ্বকাপ খেলেছেন এই ক্রিকেটার। সর্বশেষ বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে অভিষেক হয়েছে গতকাল। দ্বিতীয় দিনেই গড়েছেন বিশ্ব রেকর্ড। সর্বকনিষ্ঠ ক্রিকেটার হিসেবে টেস্টে অভিষেকে পাঁচ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়েছেন। পাঁচ উইকেটের মধ্য তার সবথেকে পছন্দ ওরিক্যানের উইকেট। অফস্ট্যাম্পের বাইরে থেকে বল পিচ করিয়ে মিডল স্ট্যাম্পে আঘাত করান নাঈম।

ছেলের এমন অর্জনে খুশি বাবা। মুঠোফোনের অপরপ্রান্তের উচ্ছ্বাস পাওয়া গেল এ প্রান্তে,‘আমার জন্য আজ গর্বের একটি দিন। প্রত্যেক বাবার স্বপ্ন থাকে ছেলের সাফল্য দেখার। আজ আমি দেখলাম। আশা করি এভাবেই ও দেশের জন্য আরও সাফল্য নিয়ে আসবে।’

নাঈমরা তিন ভাই। বড় ভাই কামরুল আলম সাব্বির ক্রিকেট খেলা শুরুর পর ছেড়ে দিয়েছেন। নাঈম মেজো। তার ছোট ভাই খেলছেন চট্টগ্রামের অনূর্ধ্ব-১৬ দলের হয়ে।