খেলাধুলা

‘সেই মূহুর্তে আমি ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম’

চট্টগ্রামে সিরিজের ১ম টেস্ট ম্যাচে উইন্ডিজকে ৬৪ রানের হারায় বাংলাদেশ দল। এই ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ দলের হয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসেন সাকিব। জানান এই ম্যাচে নিজের অনুভুতির কথা।

সাকিব বলেন , ”আমরা যারা আছি স্পিনাররা, সবাই খুব আক্রমণাত্মক বোলার। আমাদের জন্য রান আটকে বল করাটাও অনেক সময় কঠিন হয়ে যায়। আমরা সবসময় আক্রমণের পথটাই করে যাই। আমাদের বুঝতে হবে, জানতে হবে কখন দুই- তিনটা ওভার রান না দিয়ে বল করে যাবো, একটা প্রান্তে যেন আরেকজন আক্রমণ করতে পারে। এই জিনিস গুলো জানাটাই আমাদের জন্য একটু বেশি গুরুত্বপূর্ণ। সব মিলিয়ে আমাদের জন্য খুবই ভালো যে এমন চারটা স্পিনার আছে, যারা যে কোন সময়ে এসে উইকেট নিয়ে পারে।’

বিস্তারিত ব্যাখ্যা সাকিব বলেছেন, ‘আমাদের একটা জিনিসে উন্নতি করা উচিত। আমাদের গেইম সেন্সটা থাকা উচিত। কোন অবস্থায় কি করতে হবে সেটা বুঝতে হবে। হয়তো হতে পারে একজন খুব আক্রমণাত্মক বোলার। ওইদিন হয়তো তাঁর উইকেট নাও আসতে পারে। হয়তো অন্য প্রান্ত থেকে আরেকজন উইকেট পাচ্ছে। সুতরাং অপর প্রান্তে যে রান না দিয়ে বল করে যাবে, দলের জন্য করা, বোলিং পার্টনারের জন্য করা, এই মানসিকতাটা যদি আমরা একটু ভালোভাবে কাজে লাগাতে পারি, তাহলে আমি মনে করি স্পিনাররা আরও ভালো বল করতে পারবে।’

‘আমাদের চারজন প্রথম সারির স্পিনার থাকলেও আমাদের ব্যাটসম্যান কম হচ্ছে না। এটা একটা বড় প্লাস পয়েন্ট। চারজনই আমাদের খুবই আক্রমণাত্মক বোলার। একদিক থেকে খুব ভালো আবার একটু সমস্যাও। সবসময় আক্রমণই করতে থাকে, এই পাশ থেকে একটু ভালো বল হচ্ছে, আরেক দিক থেকে একটু ডিফেন্সিভ বল করবে, ওরা আর করতে পারে না। সেও উইকেট নিতে যায়। অনেক সময় রানটা হয়ে যায়। এটা বোঝাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। ‘

সাকিব আরো বলেন ,’ আসলে সবচেয়ে ভয়াবহ মূহুর্ত ছিলো ক্যাচ ধরার সময়। তখন ভয় লেগেছিলো যদি ক্যাচটা মিস হয়ে যায়, তাহলে তো বিপদ হতে পারে।’

আরও পড়ুন

হ্যামিল্টন মাসাকাদজা অাউট। জিম্বাবুয়ের তৃতীয় উইকেটের পতন

হ্যাটট্রিক করে বিশ্বকাপের মিশন শুরু করলেন মেসি। দেখুন আজকের ম্যাচে মেসির হ্যাটট্রিকের ভিডিও

হ্যাটট্রিক করলো চেলসি

Syed Hasibul