রাজনীতি

অবশেষে বিএনপি শূন্য চার আসনে প্রার্থী পেল

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৪টি আসনে সব গুলো প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল বিএনপির। ঢাকা-১, মানিকগঞ্জ-২ ও বগুড়া-৭ শরীয়তপুর-১, জামালপুর-৪ ও রংপুর-৫ আসনে প্রার্থী শূন্য হয় বিএনপির। তবে ইসিতে আপিল শুনানির প্রথম দিনে ৪টি আসনের সেই শূন্যতা কেটেছে।

বৃহস্পতিবার (৬ ডিসেম্বর) ইসিতে আপিল শুনানির প্রথম দিনে এই ৪টি আসনের শূন্যতা কাটে বিএনপির।

এদিন ৬১ জনের মধ্যে ৩৮ জনের প্রার্থিতা ফেরত পেয়েছেন বিএনপি। এরমধ্যে চারটি আসন রয়েছে, এই চারজন হলেন, ঢাকা-১ আসনের খন্দকার আবু আশফাক, জামালপুর-৪ আসনের মো. ফরিদুল কবির তালুকদার (শামীম), বগুড়া-৭ আসনের মোরশেদ মিল্টন, মানিকগঞ্জ ২ আসনের মো. আবিদুর রহমান খান।

ঢাকা-১ আসনে খন্দকার আবু আশফাকের প্রার্থীতা হয় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে পদত্যাগপত্র কার্যকর না হওয়ার কারণে আর আর রিটার্ন দাখিল না করায় ফাহমিদা হোসাইন জুবলির মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করা হয়।

বগুড়া-৭ আসনে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, সরকার মিল্টন ও সরকার বাদল তিন জনেরিই মনোনয়ন বাতিল হয়। বিএনপির তিনজন প্রার্থী মনোনয়ন দাখিল করেন।

জামালপুর-৪ আসনে বিএনপির একমাত্র প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল বাতিল করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে পদত্যাগপত্র কার্যকর না হওয়ার কারণে তার মনোনয়নপত্র দাখিল বাতিল করা হয়।

আর মানিকগঞ্জ-২ আসনে বিএনপির দুই জন প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়। তাদের মধ্যে মহাসচিবের স্বাক্ষরের সঙ্গে নমুনা স্বাক্ষরের মিল থাকায় মঈনুল ইসলাম খানের (শান্ত) এবং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে পদত্যাগপত্র কার্যকর না হওয়ার কারণে আবিদুর রহমান খানের প্রার্থিতা বাতিল হয়েছিল।

আরও পড়ুন

হেলমেট পরিহিত সেই যুবক আটক

হিরো আলমের মনোনয়নপত্র আপিলেও বাতিল

Syed Hasibul

হিরো আলম নির্বাচন করবে, তাতে এতো বিরক্তি বা হাসাহাসির কি আছে

Syed Hasibul