খেলাধুলা

এভাবে জয় পেতে থাকলে ২০১৯ বিশ্বকাপ বাংলাদেশের হবে

মিরপুরে ৩ ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে উইন্ডিজের বিপক্ষে ৫ উইকেটের বড় জয় তুলে নিয়েছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। এই জয়ে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে টাইগাররা।উইন্ডিজের দেয়া ১৯৬ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে দেখে শুনে শুরু করেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। এই দুজনে ওপেনিং জুটিতে যোগ করেন ৩৭ রান।

তামিম ১২ রান করে আউট হয়েছেন। এরপর ইমরুল কায়েস বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে পারেননি। তিনি মাত্র ৪ রান করে ফিরেছেন। লিটন দাস একবার জীবন পেয়ে ৪১ রান করেছেন।

এরপর সাকিব আল হাসান মুশফিকুর রহীমের সাথে জুটি গড়ে বড় জয়ের স্বপ্ন দেখান বাংলাদেশকে। ব্যক্তিগত ৩০ রানে সাকিব রভম্যান পাওয়েলের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়েছেন শাই হোপের হাতে।

এর মধ্যে দিয়ে সাকিব মুশফিকের ৫৭ রানের জুটি ভাঙে। সাকিবের আউটের পর উইকেটে এসেই হাত খুলে খেলছিলেন সৌম্য সরকার। রস্টন চেজের করা ৩০ তম ওভারের দ্বিতীয় বলে মাত্র ১৩ বলে ১৯ রান করে স্লিপে পাওয়েলের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন তিনি।

ষষ্ঠ উইকেটে ২১ রান যোগ করে বাংলাদেশকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও মুশফিকুর রহীম। মুশফিক ৫৫ ও মাহমুদুল্লাহ ১৪ রান করে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থাকেন।

এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নামা উইন্ডিজদের এত কম রানে বেঁধে ফেলার পেছনে মূল কলকাঠি নেড়েছিলেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা এবং কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান।

মাশরাফি ১০ ওভার বোলিং করে মাত্র ৩০ রান খরচায় ৩ উইকেট শিকার করেছেন। আর এরই সাথে নিজের ২০০ তম ওয়ানডেটি ভালোভাবেই রাঙ্গিয়ে রেখেছেন তিনি।

অপরদিকে মুস্তাফিজ ১০ ওভার হাত ঘুরিয়ে ৩৫ রানে নিয়েছেন মাশরাফির সমান উইকেট। মাশরাফি এবং মুস্তাফিজ ছাড়াও দারুণ বোলিং করেছেন পেসার রুবেল এবং দুই স্পিনার মেহেদি মিরাজ ও সাকিব আল হাসান। এই তিন বোলারই নিয়েছেন ১টি করে উইকেট।

উইন্ডিজদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেছেন ওপেনার শাই হোপ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৬ রান কিমো পল এবং ৩২ রান করেছেন রস্টন চেজ। এদিন ম্যাচের শুরু থেকেই বাংলাদেশের বোলারদের তোপের মুখে পড়েছিলো ক্যারিবিয়ানরা।

দলীয় ১০০ রান তুলতেই ৪ উইকেট হারাতে হয়েছিলো তাদের। শতকের কোটা পার করার পরেই নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে সফরকারীরা। মাঝে ৫১ রানের একটি জুটি গড়েছিলেন রস্টন চেজ এবং কিমো পল। কিন্তু চেজকে আউট করে সেই জুটিটি ভেঙ্গে দেন মুস্তাফিজুর রহমান। এরপর আর খুব বেশিদূর এগোতে পারেনি ক্যারিবিয়ানরা। শেষ পর্যন্ত দুশ’র আগেই থামতে হলো দলটির।

বাংলাদেশ একাদশঃ

মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, তামিম ইকবাল, লিটন কুমার দাস, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মেহেদি হাসান মিরাজ, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন।

উইন্ডিজ একাদশঃ

রোভম্যান পাওয়েল (অধিনায়ক), শাই হোপ (উইকেটরক্ষক), ড্যারেন ব্রাভো, মারলন স্যামুয়েলস, শিমরন হেটমায়ার, রস্টন চেজ, কাইরন পাওয়েল, দেবেন্দ্র বিশু, কিমো পল, ওশানে থমাস, কিমার রোচ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

উইন্ডিজঃ ৯/১৯৫ (৫০ ওভার) (হোপ- ৪৩, পল- ৩৬) (মাশরাফি- ৩/৩০, মুস্তাফিজ- ৩/৩৫)

টস- উইন্ডিজ (ব্যাটিং)