রাজনীতি

প্রধানমন্ত্রী বললেন ড. কামালকে খামোশ বললেই মানুষের মুখ চুপ হবে না

আজ শুক্রবার ১৪ ডিসেম্বর বিকেলে রাজধানীর খামারবাড়ি কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে আওয়ামী লীগ আয়োজিত বুদ্ধিজীবী দিবসের আলোচনা অনুষ্ঠানে গণফোরাম সভাপতি ও ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষনেতা ড. কামাল হোসেনের সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘খামোশ বললেই মানুষের মুখ চুপ হবে না। লজ্জা কম বলেই সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে তারা খামোশ বলতে পারে।’

এ সময় কামাল-মান্না-কাদের সিদ্দিকীসহ ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেন, এরা কীভাবে বিএনপির সঙ্গে, অপরাধীদের সঙ্গে, দুর্নীতিবাজদের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে। ‘বিএনপি যুদ্ধাপরাধী, তাদের স্বজন, দুর্নীতিবাজদের স্বজনদের ধানের শীষ প্রতীকে মনোনয়ন দিয়েছে। জনগণকে এদের বিষয়ে সচেতন হতে বলবো। এ অপরাধীরা যাতে ভোট না পায়।’

তিনি আরও বলেন, ‘তাদের কাছে আমার প্রশ্ন। যারা এত বড় অপরাধ করল, আর যে পাকিস্তানি বাহিনীকে আমরা পরাজিত করলাম তাদের এই দোসরদের যখন ধানের শীষে মনোনয়ন দেয়া হলো। তারা কিভাবে এই নির্বাচন করবে? এ প্রশ্নের উত্তর তারা জাতির কাছে দিতে পারবে?’ কোথায় গেল সেই বিবেক? রাজনীতিকে কোথায় নামিয়েছে? তারা যদি ক্ষমতায় যায় তাহলে দেশের মানুষের ভাগ্যে কি ঘটবে? যাদের অপরাধ প্রমাণিত, তাদের সঙ্গে ড. কামাল, সুলতান, মান্না, কাদের সিদ্দিকী কিভাবে হাত মেলালো, সেটাই আমার প্রশ্ন।

তিনি বলেন, যুদ্ধাপরাধী, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলাকারীর স্বজনসহ বাংলা ভাই ও জঙ্গিবাদের পৃষ্ঠপোষকদের মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্ট। তিনি বলেন, ‘অপরাধী ছাড়া বিএনপির থেকে ভালো কোনো যোগ্য লোক নেই? নাকি অপরাধ করলেই বিএনপিতে যোগ্য হওয়া যায়?’