রাজনীতি

ড. কামাল মরে গেলেও নির্বাচনের মাঠ ছেড়ে যাব না

আজ সোমবার ১৭ ডিসেম্বর বিকেলে আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে সিইসির সাথে আড়াই ঘণ্টার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘মরে গেলেও নির্বাচন বর্জন করবো না। প্রয়োজনে লাশ ভোটকেন্দ্রে নিয়ে যাবারও নির্দেশ দেন তিনি। এ সময় প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে অন্যান্য কমিশনার ছাড়াও নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় ড. কামাল বলেন, ‘সংবিধান অনুসারে নির্বাচন কমিশন অনেক ক্ষমতার অধিকারী। তারপরও নির্বাচন কমিশন কেন ব্যবস্থা নিচ্ছে না সেটাই তো বুঝতে পারছি না। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে নির্বাচন কমিশন চায় না আমরা নির্বাচন করি। তারা চায় আমরা যেন ভোটের মাঠ থেকে বেরিয়ে আসি। আমরা মরে গেলেও নির্বাচনের মাঠ ছেড়ে যাব না।’

এ সময় তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘কোথাও আমাদের ধানের শীষের প্রার্থীরা নামতে পারছে না। আমাদের প্রার্থীরা মাঠে নামলেই তাদের ওপর লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালানো হচ্ছে। ঢাকা শহরের কোথাও ধানের শীষের পোস্টার নেই। কেন পোস্টার নেয় সে বিষয়ে আপনারা খবর নেন।’

ড. কামাল আরও বলেন, ‘আমাদের প্রার্থীদের ওপর কোথায় কোথায় হামলা চালানো হয়েছে সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য, সুনির্দিষ্ট প্রমাণ ও ছবি দিয়েছি। এ সময় বৈঠকে সারাদেশের ৩০ জেলায় ঐক্যফ্রন্টের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার ও হয়রানি সংক্রান্ত লিখিত অভিযোগ তুলে ধরা হয়।