রাজনীতি

ইসি সচিব বলেছেন,ভোটগ্রহণের দিন ইন্টারনেটের গতি কমানোর বিষয়টি ভাবা হচ্ছে

আজ বুধবার ১৯ ডিসেম্বর রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনে ফলাফল প্রেরণের পদ্ধতি নিয়ে ডাটা এন্ট্রি অপারেটরদের এক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘নির্বাচনের দিন ৩০ ডিসেম্বর দেশজুড়ে ইন্টারনেটের গতি কমিয়ে দেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, ‘ভোটগ্রহণের দিন সকাল থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত ইন্টারনেটের গতি কমানোর বিষয়টি ভাবছে নির্বাচন কমিশন। তবে ফলাফল পাঠানোর সময় পূর্ণগতি রাখা হবে।’

এ সময় ডাটা এন্ট্রি অপারেটরদের উদ্দেশ্যে ইসি সচিব বলেন, ‘বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা এবং আমাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রধানেরা বলেছেন, ইন্টারনেটের গতি কমিয়ে দিলে পরে আপনাদের রেজাল্ট পাঠাতে কি অসুবিধা হবে? পাঁচটার আগ পর্যন্ত যদি গতি কম থাকে?’ এসময় অপারেটরদের কাছ থেকে ‘না’ সূচক সাড়া পেয়ে হেলালুদ্দীন বলেন, ‘কোনো সমস্যা নাই? চারটার পর থেকে যদি ফুল স্পিড থাকে, আপনারা ওকে?’

এ সময় অনুষ্ঠানে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা বলেন, ‘সঠিক ফলাফল ঘোষণা করে সঠিক ব্যক্তির কাছে যেন ফলাফল পৌঁছায়।’ এ সময় অপারেটরদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আপনাদের সামান্য ভুলের কারণে ব্যাপক অরাজক পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে। তাই এ ব্যাপারে সচেতন থাকতে হবে। সামান্য সংখ্যার ভুল হলে ফলাফল উল্টে যেতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশে নির্বাচনের স্বতঃস্ফূর্ত পরিবেশ বিরাজ করছে, মানুষের মধ্যে যে আগ্রহ আছে, সেটি দেখে আমরা অভিভূত হই। সুতরাং মানুষের সে আগ্রহ, আস্থার জায়গা আমাদের কারো ভুলের কারণে যেন ব্যাহত না হয়। সে ব্যাপারে লক্ষ্য রাখতে হবে।’