Notunshokal.com
খেলাধুলা

বাংলাদেশের ইতিহাস গড়ার একটি দিন

বাংলাদেশের ক্রিকেট এখন অনেক এগিয়ে গেছে। শুরুর বাংলাদেশ আর এখনকার বাংলাদেশের মধ্যে আকাশ পাতাল ব্যবধান। আগে যে বাংলাদেশ খেলতে গেলেই হেরে যেত, তারা এখন বড় বড় দল গুলোকে হারায় অনায়াসেই।

ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশ এখন সেরা শক্তির একটি দেশ। তবে সেই তুলনায় টেস্ট ও টি টুয়েন্টিতে শক্তিশালী অবস্থান এখনো তৈরি করতে পারেনি টাইগাররা।

তবে শক্তিশালী না হলেও ধীরে উন্নতি করছে এই ফরম্যাটেও। টেস্টে সর্বশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়েছে টাইগাররা। দেশের মাটিতে জিতেছে অস্ট্রেলিয়ার মত দলের বিপক্ষেও। ভালো ফলাফল করেছে শ্রীলঙ্কা- ইংল্যান্ডের বিপক্ষেও।

তবে বাংলাদেশ এখন ম্যাচে জয়ের জন্য নামলেও টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের প্রথম জয়টি ছিল সেই ২০০৫ সালের আজকের এই দিনে।

২০০৫ সালের ৬ জানুয়ারী শুরু হয়েছিল জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট। চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত সেই ম্যাচে বাংলাদেশ ২২৬ রানে জিতেছিল।

প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ করেছিল ৪৮৮ রান। দলের পক্ষে হাবিবুল বাশার সর্বোচ্চ ৯৪ রান করেছিলেন। ৮৯ রান করেছিলেন রাজিন সালাহ। ৫৬ রান করেছিলেন নাফিস ইকবাল। খালেদ মাসুদ ৪৯, মোহাম্মদ রফিক ৬৯ ও মাশরাফি মর্তুজা ৪৮ রান করেছিলেন।

জবাব দিতে নেমে শ্রীলঙ্কা তাদের প্রথম ইনিংসে ৩১২ রান করলে বিশাল লিড পায় বাংলাদেশ। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে ৯ উইকেটে ২০৪ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে টাইগাররা।

জবাব দিতে নেমে এনামুল হক জুনিয়রের বোলিং তোপে মাত্র ১৫৪ রানেই অলআউট হয়ে যায় জিম্বাবুয়ে। জুনিয়র প্রথম ইনিংসে কোন উইকেট না পেলেও দ্বিতীয় ইনিংসে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন। আর প্রথম ইনিংসে মোহাম্মদ রফিক ৫উইকেট নিয়েছিলেন এবং দ্বিতীয় ইনিংসে তিনিও কোন উইকেট পাননি। তবে মাশরাফি সেই ম্যাচে দুই ইনিংস মিলিয়ে নিয়েছিলেন ৫টি উইকেট।

আরও পড়ুন

হ্যারি কেইন,এক মাসের জন্য মাঠের বাইরে

Syed Hasibul

হ্যামিল্টন মাসাকাদজা অাউট। জিম্বাবুয়ের তৃতীয় উইকেটের পতন

হ্যাটট্রিক করে বিশ্বকাপের মিশন শুরু করলেন মেসি। দেখুন আজকের ম্যাচে মেসির হ্যাটট্রিকের ভিডিও