Notunshokal.com
খেলাধুলা

রিয়াদ ৭৬, তামিম ৬৯, সাকিব ৬১, লিটন ১০, সৌম্য ৩৩, ইমরুল ৩১ রান

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ বিপিএল মোটর ভালো যাচ্ছে না জাতীয় দলের তারকা ব্যাটসম্যান দের। বাংলাদেশের তারকা ব্যাটসম্যানদের প্রায় সবাই নিষ্প্রভ, অনুজ্জ্বল। কারো ব্যাটে রান নেই। চার ও ছক্কার ফুলঝুরির তো প্রশ্নই আসে না। বাংলাদেশের তারকাদের মধ্যে মুশফিকুর রহিম ছাড়া সবচেয়ে বেশী রান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের। খুলনা টাইটান্স ক্যাপ্টেন ৪ খেলায় করেছেন ৭৬, সর্বোচ্চ ৩৩। স্ট্রাইকরেট ১০৪.১০।

এছাড়া তামিম চার খেলায় করেছেন ৬০, সর্বোচ্চ ৩৫। স্ট্রাইকরেট তামিমের মানের ধারে কাছেও নেই; মাত্র ৮৪.৫০। লিটন দাসের অবস্থা সবচেয়ে খারাপ। ব্যাটে ঝড় তোলা বহু দূরে, দেখে মনে হয় ব্যাটিংই ভুলে গিয়েছেন। তিন খেলায় লিটনের রান মোটে ১০, সর্বোচ্চ ৯। স্ট্রাইকরেট টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের তুলনায় অস্বাভাবিক কম; ৬২.৫০।

সৌম্য সরকারের অবস্থাও বেশ খারাপ। রাজশাহীর হয়ে খেলা এই বাঁহাতি ওপেনার চার খেলায় করেছেন মাত্র ৩৩। সর্বোচ্চ ১৮। স্ট্রাইকরেটও তার মানে বেশ কম, ৯৭.০৫।

স্টিভেন স্মিথ ইনজুরির কারণে দেশে ফেরার পর যার কাঁধে পড়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের অধিনায়কত্বের গুরু দায়িত্ব- সেই ইমরুল কায়েসও নিজেকে হারিয়ে খুঁজছেন। ৪ খেলায় ইমরুলের মোট রান ৩২, সর্বোচ্চ ২৪। স্ট্রাইকরেট ৭৮.০৪।

দেশ ও বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার সাকিবও নিজেকে সেভাবে মেলে ধরতে পারেননি। এখন পর্যন্ত তার ব্যাট থেকে বেরিয়ে আসেনি কোন ঝড়ো ইনিংস। চার খেলায় সাকিবের সংগহ ৬১। সর্বোচ্চ ৩৬। স্ট্রাইকরেট বিস্ময়কর রকম কম, ৯৮.৩৮।

মুমিনুল হক এক ম্যাচে রান পেলেও (৪৪) বাকি তিন খেলায় কিছু করতে পারেননি। চার খেলায় রাজশাহীর এ বাঁহাতি টপ অর্ডারের সংগ্রহ ৬৯। এছাড়া জাতীয় দলে থাকা আরিফুল এবং বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্নে বিভোর সাবির রহমান, এনামুল হক বিজয় ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের অবস্থা খুব খারাপ। তাদের ব্যাট কথা বলছে না। তিনজনই যেন রান করতে যেন ভুলে গিয়েছেন।

তিন খেলায় সাব্বিরের সংগ্রহ ১৯, সর্বোচ্চ ১২, স্ট্রাইকরেট ৯০.৪৭। মোসাদ্দেকও তথৈবচ; চার খেলায় রান ৩৩, সর্বোচ্চ ১২। নাসির দুই খেলায় ৪, সর্বোচ্চ ৩। আরিফুল চার ম্যাচে ৫২, সর্বোচ্চ ১৯* স্ট্রাইকরেট ৯২.৯৫। এনামুল হক বিজয় ৪ খেলায় ৫৭, সর্বোচ্চ ৪০, স্ট্রাইকরেট ১০৫.৫৫।

এছাড়া নিষেধাজ্ঞার খড়গ কাটিয়ে আবার বিপিএলে ফেরা আশরাফুলও সুবিধা করতে পারেননি। ২ খেলায় তার রান ২৫, সর্বোচ্চ ২২, স্ট্রাইকরেট ৮৯.২৮।

অমিত সম্ভাবনার আধার নাজমুল হাসান শান্তর অবস্থাও বিস্ময়কর রকমের খারাপ। তিন খেলায় এ বাঁহাতি টপ অর্ডারের সংগ্রহ ২০, সর্বোচ্চ ১৩, স্ট্রাইকরেট ৯৫.২৩। পেস বোলিং অলরাউন্ডার সাইফউদ্দীন চার খেলায় করেছেন ৩৮, সর্বোচ্চ ২৬, স্ট্রাইকরেট ১২৬.৬৬।

আরও পড়ুন

হ্যারি কেইন,এক মাসের জন্য মাঠের বাইরে

Syed Hasibul

হ্যামিল্টন মাসাকাদজা অাউট। জিম্বাবুয়ের তৃতীয় উইকেটের পতন

হ্যাটট্রিক করে বিশ্বকাপের মিশন শুরু করলেন মেসি। দেখুন আজকের ম্যাচে মেসির হ্যাটট্রিকের ভিডিও