অন্যান

২৫ দিনের সন্তান রেখে ডেঙ্গুতে মারা গেলেন মা

মাত্র ২৫ দিনের সন্তান রেখে ডেঙ্গুতে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে মা’রা গেলেন চামেলি আক্তার (২০) নামে এক মা। তার বাড়ি মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার আরুয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ শালজানা গ্রামে।

বুধবার সকালে রাজধানীর মগবাজারের রাজমনো স্পেশালাইজড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা’রা যান তিনি। রাত ৮টার দিকে গ্রামের বাড়িতে গৃহবধূর ম’রদেহ পৌঁছালে স্বজনদের কান্নায় এক হৃদয়বি’দা’রক দৃশ্যের অবতারণা হয়। চামেলি আক্তার মানিকগঞ্জ মমতাজ চক্ষু হাসপাতালের সহকারী নার্স ছিলেন।

চামেলি আক্তারের স্বামী সবুজ মিয়া জানান, গত বৃহস্পতিবার ডাক্তারি পরীক্ষায় তার স্ত্রীর ডেঙ্গু শনাক্ত হয়। ওই দিনই তাকে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে হঠাৎ তার অবস্থার অবন’তি হয়। ভোরে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। দ্রুত তাকে ঢাকায় নেয়া হয়।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রোগীর চাপ বেশি থাকায় পরিচিত একজনের পরামর্শে তাকে পাশের একটি কমিউনিটি হাসপাতালে নেয়া হয়। কিন্তু সেখানকার চিকিৎসকরা রোগীকে দ্রুত আইসিইউতে নেয়ার পরামর্শ দেন।

পরে রাজধানীর মগবাজারের রাশমনো স্পেশালাইজড হাসপাতালে আইসিইউতে ভর্তি করা হয় চামেলিকে। এরপর দেয়া হয় লাইফ সাপোর্টও। বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

সবুজ মিয়া জানান, গত বছরের আগস্ট মাসে তাদের বিয়ে হয়। মাত্র ২৫ দিন আগে চামেলির কোলজুড়ে জন্ম নেয় একটি পুত্রসন্তান। যার নাম রাখা হয়েছে সায়মন। কিছু বুঝে ওঠার আগেই মা হারা হলেন সায়মন।