খেলাধুলা

দুইবার সুয়োগ দিলেও চতুর্থ ইনিংসে ৪০০ রান করতে পারবে না বাংলাদেশ।

নিঃসন্দেহে চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশের থেকে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে আফগানিস্তান। একপ্রকার জয়ের মুখে রয়েছে আফগানিস্তান। তৃতীয় দিন শেষে তারা লিড নিয়েছে ৩৭৪ রানের। চতুর্থ দিনে তারা এটাকে ৪০০ ছাড়িয়ে নিতে চায়। এই ম্যাচ জয়ের ব্যাপারে ৭০ শতাংশ আশাবাদী আফগানিস্তানের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান ইব্রাহিম জাদরান।

ক্রিকেটে সবকিছুই হতে পারে। আমরা চেষ্টা করব, যেহেতু আমাদের হাতে দুটো দিন সময় আছে। প্রথম কাজ হলো, দ্রুত ওদের বাকি দুটি উইকেট নেওয়া। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটসম্যানদের দায়িত্বটা হবে ঠিকভাবে বুঝে সেটা পালন করা। অবশ্যই আমি মনে করি, ক্রিকেট খেলায় সবই হতে পারে। জেতা ম্যাচও হেরে যেতে পারে কেউ কিংবা হেরে যাওয়া ম্যাচ সহজেই জিততে পারে। এমন অনেক ঘটনাই আছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে।” সংবাদ সম্মেলনে এসে এমনটাই বলেছেন জাতীয় দলের তরুণ অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ।

“আমরা আমাদের প্রসেসে থাকব। ব্যাটসম্যানদের চ্যালেঞ্জ নিতে হবে। এমন বড় স্কোর তাড়া করতে গেলে, অবশ্যই আমাদের ব্যাটসম্যানদের দায়িত্ব নিয়ে ব্যাটিং করতে হবে।”

“আমাদের জন্য এই রান তাড়া করাটা সত্যিই কঠিন। তারপরও আমাদের চেষ্টা করতে তো বাধা নেই। আমাদের সুযোগ নিতে হবে। দুই দিন সময় আছে, চেষ্টাটা আমরা করতে চাই। তারপর হেরে যাই কিংবা জিতে যাই, সেটা পরের ব্যাপার। আমাদের হাতে যেটা আছে, সেটা হচ্ছে শেষ পর্যন্ত চেষ্টা করা

মেহেদী হাসান মিরাজের এই সংবাদ সম্মেলনের পর ফেসবুকে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। বাংলাদেশের থেকে অপেক্ষাকৃত অনেকটাই দুর্বল আফগানিস্থান। বিশেষ করে টেস্ট ক্রিকেটে আফগানিস্তানের থেকে অনেক এগিয়ে রয়েছে বাংলাদেশ।

কিন্তু চট্টগ্রাম টেস্টে এমন হতাশা পারফরম্যান্সের ফেসবুকে সমালোচনার ঝড় তুলছে বাংলাদেশের জাতীয় দলকে নিয়ে। অনেকেই বলছে দুইবার ব্যাট করলেও ম্যাচে জিততে পারবে না বাংলাদেশ। শুধু তাই নয় একাদশে ফাস্ট বোলার না রাখার কারণে সমালোচনার মুখে পড়েছে নির্বাচকরা।