খেলাধুলা

স্ত্রী অঞ্জলী নন, ভালোবাসা দিবসে ‘প্রথম প্রেম’-এর কথা জানালেন শচীন

ভালোবাসা দিবস, সে যেমনই হোক না কেন বিশেষ এই দিনে ভালো স্মৃতি মনে করতে ভালোই লাগে। তাই ঝকঝকে এই ফেস্টিভ্যালেও প্রথম প্রেমকে ভুলে না গিয়ে মনে রাখাতেই বিশ্বাস রেখেছেন শচীন টেন্ডুলকার। তবে অবাক করে সেই প্রথম প্রেম তার স্ত্রী নন।

৪৬ বছর বয়সী এই খেলোয়াড় শুক্রবার ট্যুইটারে প্রথম প্রেম পৃথিবীকে জানাতে ছোট ভিডিওয়ের মাধ্যমে তুলে ধরেছেন, সেখানেই দেখা গিয়েছে তার প্রথম প্রেম ক্রিকেট। ভিডিওটি ট্যুইট করে শচীন শেয়ার করে লিখেছেন, ‘মাই ফার্স্ট লাভ’। সেখানে দেখা যাচ্ছে, ভারতীয় সেই ক্রিকেটার ব্যাট হাতে নেট প্র্যাকটিস করছেন’।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে শচীন অবসর ঘোষণা করেন সেই ২০১৩ সালে। তারপর ২০১৪ সালে একবার এমসিসির একটি টুর্নামেন্টে খেলতে দেখা গিয়েছিল। সেই শেষ। তারপর থেকে নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন পরিবারের সঙ্গে। মাঝে মাঝে ধারাভাষ্যকর হিসেবে দেখা যায়। সরাসরি মাঠে তাকে দেখাগেল এত বছর পর। যা ক্রিকেট সমর্থকদের হৃদয়ে ফের স্বপ্নের ছোঁয়া দিয়ে গেল।

শেষবার মাঠে নেমেছিলেন অল-স্টার একাদশের টুর্নামেন্টে। তারপর থেকে আর শচীনের ব্যাটের সেই রোমহ’র্ষক শটগুলি দেখতে পায়নি ক্রিকেট বিশ্ব। ৬ বছর পর সেই সুযোগ তৈরি হল গতবছরের বর্ষসেরা মহিলা ক্রিকেটার এলিস পেরির সৌজন্যে। অস্ট্রেলিয়ার দাবা’নলে ক্ষ’তিগ্র’স্তদের সাহায্যার্থে শচীনকে এগিয়ে আসতে আহ্বান করেন পেরি। আর তা ফেলতে পারেননি মাস্টার ব্লাস্টার।

চিকিত্‍সকদের পরা’মর্শ উড়িয়ে দিয়েই মাঠে নামেন। আর মাঠে নেমে প্রথম বলেই চার। তারপরও সবকটি বল তার ব্যাটের একেবারে মাঝখানে লাগল। বাউন্ডারি আর আসেনি যদিও। স্বাস্থ্যের কথা ভেবেই হয়তো সেভাবে জো’রে ব্যাটও ঘো’রাননি শচীন। তবে, যে ছটি বল খেললেন তাও যে ক্রিকেট বিশ্বের বড় পাওনা, তা বলাই বাহুল্য।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy