বিনোদন

‘কথা হয়েছে, সে রাজি হয়েছে’

বিনোদন ডেস্ক: ‘বালিঘর’ ছবির নতুন শুটিং পরিকল্পনায় কোনোভাবে শিডিউল মেলাতে পারছেন না তিশা। তাই তো অরিন্দম শীলের এই ছবি থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন তিনি। পরিচালক জানান, তিশার মতো ভালো অভিনয়শিল্পীর সঙ্গে কাজ করতে না-পারাটা তাঁর জন্য দুর্ভাগ্য। কিন্তু তা ভেবে বসে থাকলে তো আর চলবে না, শুটিং করতেই হবে। বিকল্প কাকে দিয়ে ‘বালিঘর’ ছবির শুটিং করা যায়, অবশেষে তা চূড়ান্ত করেছেন। জানা গেছে, ‘বালিঘর’ পরিবারের নতুন এই সদস্য অভিনয়শিল্পী জাকিয়া বারী মম।

গতকাল সোমবার দুপুরে কলকাতা থেকে অরিন্দম শীল বলেন, ‘আমাদের সঙ্গে মমর মৌখিক কথা হয়েছে। সে কাজটি করতে রাজি হয়েছে। শুটিং শুরু করার আগে কোনো সময়ে তাঁর সঙ্গে আনুষ্ঠানিক চুক্তির কাজ সেরে ফেলব।’

মমকেও খুব ভালো একজন অভিনয়শিল্পী মনে করেন অরিন্দম শীল। তাই তিশার কাছ থেকে ‘না’ শোনার পর পরিচালক এমন একজনকে খুঁজছিলেন, যে তাঁর ছবির জন্য উপযুক্ত। একপর্যায়ে এসে পরিচালকের মনে হয়েছে, মম হতে পারেন সেই অভিনয়শিল্পী। তাই মমর সঙ্গে প্রাথমিক সব আলোচনা সেরে নিয়েছেন তিনি।

অরিন্দম শীল বলেন, ‘মমর কিছু কাজ দেখেছি। অভিনয়শিল্পী হিসেবে তাঁকে আমার ভীষণ ভালো লেগেছে। তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছি, তাঁর সঙ্গে কাজটি করব। আশা করছি, মম অনেক ভালো করবেন।’

সম্প্রতি বাঁধন আর পূর্ণিমার ছেড়ে দেওয়া ‘দহন’ ছবিতেও অভিনয়ের জন্য মমর সঙ্গে আলোচনা চূড়ান্ত করেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া। তবে প্রযোজক আব্দুল আজিজ আর নায়িকা মমর পক্ষ থেকে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। জানা গেছে, ঈদের পর ‘দহন’ ছবির শুটিং শুরু হবে। তখনই মমর নাম ঘোষণা করা হবে।

এ বছর ২০ জানুয়ারি ঢাকার একটি পাঁচতারা হোটেলে জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে ‘বালিঘর’ ছবির মহরত করা হয়। যৌথ প্রযোজনার এই ছবির বাংলাদেশ অংশের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান বেঙ্গল ক্রিয়েশনস আর ভারতের নাথিং বিয়ন্ড সিনেমা। ছবির অভিনয়শিল্পীদের মধ্যে আছেন বাংলাদেশের আরিফিন শুভ, মম, নওশাবা আর ভারত থেকে আবির চট্টোপাধ্যায়, পার্ণো মিত্র, রাহুল বন্দ্যোপাধ্যায়, অনির্বাণ ভট্টাচার্য প্রমুখ। গত মার্চ মাসে ছবিটির শুটিং শুরু হওয়ার কথা থাকলেও নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী তা হতে যাচ্ছে এ বছর সেপ্টেম্বরে। ‘বালিঘর’ ছবির শুটিং শুরু হবে বাংলাদেশের কক্সবাজারে। এই ছবির সংগীত পরিচালনা করছেন বাংলাদেশের চিরকুট আর ভারতের বিক্রম ঘোষ।

‘বালিঘর’ ছবিটি ছেড়ে দেওয়ার কারণ জানিয়ে নিজের ফেসবুক পেজে গতকাল দুপুরে একটি পোস্ট লেখেন তিশা। সেখানে তিশা লিখেছেন, ‘আমার ভক্ত এবং দর্শক ভাইবোনদের উদ্দেশে একটি তথ্য জানিয়ে রাখতে চাই, যাতে ভবিষ্যতে কোনো ভুল-বোঝাবুঝি আর গুজব তৈরির সুযোগ না থাকে। কলকাতার বিশিষ্ট পরিচালক অরিন্দম শীলের “বালিঘর” ছবিটি আমি আর করছি না। শিডিউলের জটিলতার কারণে আমি সেই ছবি থেকে বেরিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এ বিষয়ে পরিচালকের সঙ্গে আমার আলোচনা হয়েছে। আমরা সকল প্রকার সৌজন্য বজায় রেখেই একমত হয়েছি। আমি ছবিটার জন্য শুভকামনা জানাচ্ছি।’

এরপর তিশা বলেন, ‘ওই সময় দেশের বাইরে আমার শো আছে। কয়েকটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের জন্য শিডিউল দেওয়া আছে। এ ছাড়া দেশের বাইরে বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনা আছে। সবকিছু এমনভাবে শিডিউল করা যে নতুনভাবে শিডিউল করা মোটেও সম্ভব নয়।’

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy