খেলাধুলা

নোভাক জকোভিচ ও জুডান মার্টিন দেল পোত্রোর মধ্যে চূঢ়ান্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ

স্পোর্টস ডেস্কঃ নোভাক জকোভিচ ও জুডান মার্টিন দেল পোত্রোর মধ্যে চূঢ়ান্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ একটা গ্র্যান্ড স্ল্যাম ফাইনালের আশায় ভিড় জমেছিল আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামে। তৃতীয় ও ষষ্ঠ বাছাইয়ের লড়াই যতটা টানটান হওয়া উচিত, তেমনটা অবশ্য চোখে পড়ল না ফ্লাশিং মেডোয়। বরং বড় মঞ্চে বরাবর সফল হওয়ার অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে বজি মাৎ করেন জোকার। দেল পোত্রোকে স্ট্রেট সেটে পরাজিত করে ক্যারিয়ারের তৃতীয় যুক্তরাষ্ট্র ওপেন খেতাব ঘরে তোলেন সার্বিয়ান তারকা। একই সঙ্গে সর্বাধিক মেজর ট্রফি জয়ের নিরিখে ছুঁয়ে ফেলেন কিংবদন্তি পিট সাম্প্রাসকে

২০০৯ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর দেল পোত্রো আবার যুক্তরাষ্ট্র ওপেনের ফাইনালে ওঠেন। অন্যদিকে এই নিয়ে আটবার ফ্লাশিং মেডোর খেতাবি লড়াইয়ে অংশ নেন জকোভিচ। শেষবার ২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্র ওপেনের ফাইনাল খেলেছিলেন সার্বিয়ান তারকা। সেবার রানার্স হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় তাঁকে। তার আগের বছর অবশ্য ইউএস ওপেন চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন তিনি। সবমিলিয়ে পাঁচবার বছরের শেষ গ্র্যান্ড স্ল্যামের ফাইনালে হেরেছেন জোকার। এই নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হলেন তিনবার।

৩ ঘণ্টা ১৫ মিনিটের লড়াইয়ে জকোভিচ ৬-৩, ৭-৬ (৭/৪), ৬-৩ সেটে পরাজিত করেন দেল পোত্রোকে। চোট সারিয়ে কোর্টে ফেরার পর ছন্দে ফিরতে একটু সময় নিলেও চলতি বছরে পর পর দু’টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম ট্রফি ঘরে তুললেন জোকার। উইম্বলডনের পর যুক্তরাষ্ট্র ওপেন চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় নোভাকের মোট গ্র্যান্ড স্ল্যাম খেতাবের সংখ্যা দাঁড়াযল ১৪। অর্থাৎ তিনি বসে পড়লেন পিট সাম্প্রাসের সঙ্গে একাসনে।

সাম্প্রাস ১৮টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম ফাইনালে উঠে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন ১৪টিতে। জকোভিচ ২৩টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম ফাইনাল খেলে ছুঁয়ে ফেলেন সাম্প্রাসকে। এই নিরিখে জোকারের সামনে রয়েছেন রজার ফেডেরার ও রাফায়েল নাদাল। ফেডেরার ৩০টি মেজর ফাইনাল খেলে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন রেকর্ড ২০টি গ্র্যান্ড স্ল্যামে। নাদাল ২৪বার ফাইনালে উঠে মেজর জিতেছেন ১৭টি। সাম্প্রাসকে ছুঁয়ে কিংবদন্তি মার্কিন তারকাকে জকোভিচের বার্তা, ‘আমি পিটকে জানাতে চাই, তুমি আমার আদর্শ। আমি তোমাকে ভীষণ ভালোবাসি।’

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy