খেলাধুলা

আজকের ম্যাচ হতে পারে বাংলাদেশের জন্য বিশাল সুসংবাদ

ঘুরে দাঁড়ানোর সময় বড্ড কম। আজই নেমে পড়তে হচ্ছে আফগানিস্তানের বিপক্ষে। রশিদ খান, মোহাম্মদ নবীদের কাছে হারলেই বাড়ি ফেরার টিকিট নিশ্চিত শ্রীলঙ্কার। তাহলেই নিশ্চিত হয়ে যাবে বাংলাদেশ এবং আফগানিস্তানের পরের রাউন্ড। তাই আজ বাংলাদেশ চাইবে যেন আফগানিস্তানই জিতে

রীতিমতো বিধ্বস্ত শ্রীলঙ্কা। এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে বাংলাদেশের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ ১৩৭ রানে। ঘুরে দাঁড়ানোর সময় বড্ড কম। আজই নেমে পড়তে হচ্ছে আফগানিস্তানের বিপক্ষে। রশিদ খান, মোহাম্মদ নবীদের কাছে হারলেই বাড়ি ফেরার টিকিট নিশ্চিত। পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন হলেও ফিরতে হবে খালি হাতে। ব্যর্থতার বৃত্তে থাকা লঙ্কান ক্রিকেটে বড় ধাক্কা হবে সেটা।

আফগানিস্তান এশিয়া কাপে ফিরেছে এক আসর বিরতি দিয়ে। মর্যাদার টুর্নামেন্টে অভিষেক ২০১৪ সালে। গতবার টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে হলেও জায়গা মেলেনি। এবার আরব আমিরাতে ফিরে শিরোপা জেতার হুংকার রশিদ খানের! ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে থাকা এ বোলারের চোখ শিরোপায়, ‘অবশ্যই (শিরোপা জিততে পারি আমরা)। টুর্নামেন্টটা উপভোগ করতে চাই। চাপের সময়গুলো ঠাণ্ডা মাথায় কাটাতে পারলে যেকোনো কিছু সম্ভব।’

এশিয়া কাপে অভিষেকে বাংলাদেশকে হারিয়েছিল আফগানিস্তান। ফতুল্লার সেই ম্যাচে আফগানদের ২৫৪ রানের জবাবে বাংলাদেশ গুটিয়ে যায় ২২২-এ। আসগর আফগান ৯০ ও সামিউল্লাহ সেনওয়ারি করেছিলেন ৮১ রান। অধিনায়ক মোহাম্মদ নবী নেন ৩ উইকেট।

চার বছর পর দলটা প্রায় একই আছে। রশিদ খান আর মুজিব উর রহমানের মতো দুই তরুণ এসে বাড়িয়েছেন বোলিং শক্তি। গত দুই বছরের রেকর্ডও সমীহ জাগানিয়া আফগানিস্তানের। ৩৪ আন্তর্জাতিক ম্যাচে জিতেছে ১৯টিতে। টি-টোয়েন্টিতে হোয়াইটওয়াশ করেছে বাংলাদেশকে।

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে হয়েছে চ্যাম্পিয়ন। ক্যারিবীয়দের সেই টুর্নামেন্টে হারিয়েছিল আবার দুইবার। তবে হঠাৎ ব্যাটিংয়ে ধস নামাটা বড় দুর্বলতা হয়ে আছে তাদের ক্রিকেটে। এটা কাটিয়ে উঠতে পারলে লঙ্কানদের চমকে দেওয়ার সামর্থ্য আছে আফগানিস্তানের।

শ্রীলঙ্কা এশিয়া কাপে এসেছে চোট পাওয়া দীনেশ চান্ডিমাল আর দানুশকা গুনাথিকালাকে ছাড়া। গত দুই বছরে দলটির নেতৃত্বে ছিলেন সাতজন! বারবার এমন পরিবর্তনে নিজেদের হারিয়ে খুঁজছে হাতুরাসিংহের দল। টুর্নামেন্টটা শুরুও হয়েছে ১৩৭ রানের বড় হারে।

মাশরাফিদের ২৬১ রানের জবাবে ৩৫.২ ওভারে গুটিয়ে গেছে ১২৪ রানে। বাংলাদেশের বিপক্ষে এটা তাদের সবচেয়ে কম রানের ইনিংস। এ জন্য হতাশা লুকাননি অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ, ‘আমরা অনেক ক্যাচ ফেলেছি।

ব্যাটসম্যানরা উইকেট বিলিয়ে দিয়ে এসেছে বাজে শট খেলে।’ এর মধ্যেও ইতিবাচক হচ্ছে দীর্ঘদিন পর ফিরে লাসিথ মালিঙ্গার ৪ উইকেট নেওয়া। তা ছাড়া আফগানিস্তানের বিপক্ষে দুই ম্যাচ খেলে দুটিই জিতেছে শ্রীলঙ্কা। আজ টিকে থাকার লড়াই বলে নিজেদের সেরাটা খেলতে প্রত্যয়ী ম্যাথুজের দল।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy