খেলাধুলা

ফেরার লড়াইয়ে ইমরুল-সৌম্য-আশরাফুল

স্পোর্টস ডেস্ক: ফর্মহীনতার কারণে এশিয়া কাপের স্কোয়াডে জায়গা হয়নি ইমরুল কায়েস ও সৌম্য সরকারের। তাই দলে ফিরতে মরিয়া ইমরুল-সৌম্য। তবে গেল মাসেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিষেধাজ্ঞা ওঠে যাওয়া আশরাফুলের লড়াইটা আরও কঠিন।কিন্তু হাল ছাড়তে রাজি নন টেস্ট ক্রিকেটের সর্বকনিষ্ঠ এ সেঞ্চুরিয়ান।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে প্রাণপণে লড়াই শুরু করেছেন মোহাম্মদ আশরাফুল। ফিরতেই হবে জাতীয় দলে। ঠিক সেই সময় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) তাকে ডেকেছে হাই পারফরম্যান্স ইউনিটে (এইচপি)। কাল থেকে এইচপি দুই দল লাল ও সবুজে ভাগ হয়ে খেলবে খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে। এই চারদিনের ম্যাচের জন্যই নির্বাচকরা আশরাফুলকে ডেকেছেন লাল দলে। হঠাৎ করেই এমন ডাকে বেশ পুলকিত জাতীয় দলের সাবেক এ অধিনায়ক। গতকালই তিনি ম্যাচ খেলার জন্য পৌঁছেছেন খুলনায়।

এ প্রসঙ্গে আশরাফুল বলেন, ‘নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার পর থেকে আমার জন্য ম্যাচ খেলাই বিশেষ প্রয়োজন ছিল। কারণ আমি যত ম্যাচ খেলবো ততোই নিজেকে ফিরে পাবো। প্রস্তুত করতে পারবো সামনের জন্য। এছাড়াও সামনেই আমাকে বাংলাদেশ ক্রিকেট লীগেও (বিসিএল) দেখা যাবে। সেখানেও চারদিনের ম্যাচ। তাই এইচপির সঙ্গে এই চারদিনের ম্যাচটি আমার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করার ‘বড় সুযোগ’ বলেই আমি মনে করছি। এখন চেষ্টা থাকবে সেই সুযোগ কাজে লাগানোর।’

গেল মাসের ১৩ তারিখে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠে আশরাফুলের। বিপিএলে ফিক্সিংয়ে জড়িয়ে তিনি ৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন। তবে ২ বছর আগে তার ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলার উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠে। এরপর তিনি মাঠে ফিরে লড়াই শুরু করেন নিজেকে

ফিরে পাওয়ার। শুরুটা ভালো না হলেও গেল বছর ঢাকা প্রিমিয়ার লীগে মওসুমে রেকর্ড ৫ সেঞ্চুরি করে ফের আলোচনায় আসেন। তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিষেধাজ্ঞা ওঠার পর নতুন করে আরেক প্রশ্ন আসে তার। ৩৪ বছর বয়সী এ ক্রিকেটার ফিরতে পারবেন তো জাতীয় দলে? কারণ তার কি সেই ফিটনেস আছে জাতীয় দলে ফেরার! এমন কিছু যে আসবে তা ভালো করেই জানতেন দেশের এক সময়ের সেরা ব্যাটসম্যান। দ্রুত চলে যান ইংল্যান্ডে। সেখানে নিজেকে ফিট করতে শুরু করেন ট্রেনিং। ভাত খাওয়া রীতিমতো ছেড়েই দেন। এতে কাজও হয়েছে। জাতীয় লীগে খেলার আগে বিসিবির ফিটনেস পরীক্ষায় ১১.৪ পয়েন্ট তুলে সেই প্রশ্নের জবাব দেন তিনি।
অন্যদিকে এবার আশরাফুলের লক্ষ্য ২০১৯ এ ইংল্যান্ডে ওয়ানডে বিশ্বকাপে জাতীয় দলের হয়ে খেলা।

এজন্য তাকে পাড়ি দিতে হবে এখনো অনেকটা পথ। সেই লক্ষ্য পূরণে নিজের চেষ্টা নিয়ে তিনি বলেন, ‘শেষ তিন মাস যেভাবে ট্রেনিং করেছি, ফিটনেস লেভেল আন্তর্জাতিক পর্যায়ে চলে এসেছে। এখন কেবল পারফর্ম করে প্রমাণ করতে হবে আমি তৈরি আছি। যত লম্বা সময় ব্যাটিং করতে পারি সেটিই লক্ষ্য থাকবে। একটা ভালো ইনিংস আমাকে আত্মবিশ্বাস দেবে সামনে এগিয়ে যাওয়ার।’

বিসিবি লাল ও বিসিবি সবুজ দলের ব্যানারে এইচপি দলের হয়ে আশরাফুল ছাড়াও চারদিনের ম্যাচটিতে খেলবেন সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, সানজামুল ইসলাম, সাইফ হাসান, শফিউল ইসলাম, জুবায়ের হোসেন লিখন, কামরুল ইসলাম রাব্বি, মার্শাল আইয়ুব, ইবাদত হোসেন, আবু জায়েদ রাহি, সাদমান ইসলামের মতো ক্রিকেটার।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy