খেলাধুলা

১ ম্যাচ বাকী থাকতেই ভারতের সার্থে বাংলাদেশের সাথে যে অবিচার করল আইসিসি

এশিয়া কাপের গ্রুপ পর্বের খেলা এখনও শেষ হয়নি। দুবাইয়ে আগামীকাল বৃহস্পতিবার গ্রুপ চ্যাম্পিয়নের লড়াইয়ে আফগানিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

কিন্তু তার আগেই সুপার ফোরের নতুন সূচি ঘোষণা করেছে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি)। বাংলাদেশকে গ্রুপের রানার্স আপ গণ্য করে করা এই সূচিতে ‘আয়োজক’ ভারতকে বাড়তি সুবিধা দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

হংকংয়ের বিপক্ষে ভারতের জয়ের পর সুপার ফোরের পরিবর্তিত সূচি অনুযায়ী ভারত বাকি সব ম্যাচই দুবাইয়ে খেলবে। তাতে দুই গ্রুপের বাকি দলগুলোর অবস্থান যাই হোক না কেন। শুধু তাই না, এসিসি ধরেই নিয়েছে বাংলাদেশ তাদের গ্রুপের রানার্স আপ হবে আর আফগানিস্তান হবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন!

অথচ দুই দলই শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছে, আর বাংলাদেশের নেট রান রেট আফগানিস্তানের চেয়ে বেশি। অর্থাৎ, সূচি তৈরির আগেই এগিয়ে আছে বাংলাদেশ। আর জিতলে তো কথাই নেই। অন্যদিকে ভারত ও পাকিস্তানের গ্রুপ পর্যায়ের শেষ খেলা মাঠে গড়াবে আজ (১৯ সেপ্টেম্বর)। ফলে এখানেও গ্রুপ পর্বের ম্যাচ শেষ হওয়ার আগেই ভারতকে গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ধরে নিচ্ছে এসিসি।

নতুন সূচি অনুযায়ী, ভারত এবং পাকিস্তান আগামী শুক্রবার (২১ সেপ্টেম্বর) সুপার ফোরের ম্যাচে বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের মুখোমুখি হবে। শুরুতে সূচি ছিল এমন- গ্রুপ ‘এ’র চ্যাম্পিয়ন বনাম গ্রুপ ‘বি’ রানার্স আপ দল দুবাইয়ে এবং গ্রুপ ‘এ’র রানার্স আপ বনাম গ্রুপ ‘বি’র চ্যাম্পিয়ন দল আবুধাবিতে খেলবে।

এর মানে হচ্ছে, বাংলাদেশকে বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) আবুধাবিতে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ খেলেই শুক্রবার (২১ সেপ্টেম্বর) ভারতের বিপক্ষে খেলার জন্য দুবাইয়ে হাজির হতে হবে। তারপর আবার রোববার (২৩ সেপ্টেম্বর) আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ খেলতে আবুধাবিতে যেতে হবে মাশরাফিদের। তবে কিছুটা সুবিধাও হয়েছে। কারণ, নতুন সূচিতে আবুধাবিতে ভ্রমণ একদিন কমেছে বাংলাদেশের। আগের সূচিতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হলে চারদিনে তিন ম্যাচ খেলতে হতো মাশরাফিদের।

এশিয়া কাপের পরিবর্তিত সূচিমূল ক্ষতিটা হয়েছে পাকিস্তানের। আবুধাবিতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলার পর ছুটতে হবে দুবাইয়ে। দুই দিন পরেই আবার আবুধাবিতে ফিরে বাংলাদেশের মুখোমুখি হতে হবে সরফরাজদের।

নতুন সূচিতে সবচেয়ে বেশি লাভ হয়েছে ভারতের। এর আগের সূচিতে ‘এ’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হলেই শুধু একই ভেন্যু তথা দুবাইয়ে খেলার সুযোগ রাখা হয়েছিল। কিন্তু ভারতের গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়া এখনও নিশ্চিত না হলেও ভ্রমণ ক্লান্তি থেকে বাঁচিয়ে দিতে তাদের সকল ম্যাচ রাখা হয়েছে দুবাইয়ে। শুধু তাই না, ভারত যদি ফাইনালে পা রাখে তাহলেও দুবাই ছাড়তে হবে না তাদের। কারণ, ফাইনালের ভেন্যু দুবাই।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশিত এক সংবাদ অনুসারে, এশিয়া কাপের নতুন সুচির একদম সুচনায় লেখা রয়েছে, ‘সুপার ফোরে কোয়ালিফাই করার পর, একমাত্র স্বাগতিক বোর্ডকে (ভারত) গ্রুপ ‘এ’র প্রথম কোয়ালিফায়ার হিসেবে গণ্য করা হবে।‘

তাদের এমন দাবি যদি মেনেও নেওয়া হয়, তবু গ্রুপ ‘বি’র শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ-আফগানিস্তান মুখোমুখি হওয়ার আগেই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন নির্ধারণ কতটা বাস্তবসম্মত?

এশিয়া কাপের নতুন সূচি শুধু ভারতের সুবিধার্থে পরিবর্তন করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। সমালোচনা চলছে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমেও। ভারত ছাড়া সুপার ফোরের বাকি সব দলগুলোকেই এখন আরবের তীব্র গরম, ভ্রমণ ক্লান্তি সহ্য করে মাঠে নামতে হবে। আর ভারত? ক্রিকেটের ‘মোড়ল’ হওয়ার সুবিধা পাচ্ছে কি না এমন প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy