খেলাধুলা

আগামীকাল ম্যাচে ওপেনিং করবে যারা

প্রথম রাউন্ডের শেষ আর সুপার ফোরের শুরুটা রীতিমত ব্যর্থ ছিল টাইগাররা। আগামীকাল আবারও আফগানিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামবে মাশরাফিরা। লক্ষ্য একটাই ঘুরে দাঁড়ানো। সে লক্ষ্যেই টুর্নামেন্টের মাঝপথে মরুর পথ ধরেছেন আজ ইমরুল কায়েস ও সৌম্য সরকার।

এদিকে আফগানিস্তান ও ভারতের বিপক্ষে পর পর দুই দিনে নতুন ওপেনিং জুটির ব্যর্থতায় তড়িৎ সিদ্ধান্ত পালটায় বিসিবি। লিটন দাস ও নাজমুল হোসেন শান্তর ব্যর্থতার কারণেই এই দুজনকে ডেকে নেওয়ার কারণ জানান দুইবাইতে দলের সঙ্গে থাকা আকরাম তামিম ইনজুরিতে পড়ার কারণে ওপেনিংয়ে নড়বড়ে অবস্থা।

তাছাড়া দুটি ম্যাচে ওপেনিং ভালো পারফরম্যান্স পাইনি। টিম ম্যানেজমেন্টের চাওয়া ছিল একজন ওপেনারের। আকরাম জানান ঝুঁকি এড়াতেই তারা উড়িয়ে আনছেন দুজনকে টিম ম্যানেজমেন্ট একজন ওপেনারের কথা বলেছে।

তিনি বলেন আমরা ঝুঁকি না নিয়ে দুইজন ওপেনারকে নিয়ে আসছি। টিম ম্যানেজমেন্ট এবং বোর্ড প্রধানের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে ইমরুল কায়েস ও সৌম্য সরকারকে আনছি।

তামিম ইনজুরিতে পড়ার পরও দলে থাকা অন্যদের উপর ভরসা করতে চেয়েছিলেন আকরামরা। তবে টানা ব্যর্থতায় ধর্যৈচ্যুতি হয়েছে টিম ম্যানেজমেন্টের আমরা কিন্তু এসব বিষয় চিন্তা করেই একজন ব্যাকআপ খেলোয়াড় নিয়ে এসেছি।

তিনি বলেন যাদেরকে আমরা ব্যাকআপ হিসেবে নিয়ে এসেছি। ওরা ভালো খেলোয়াড়। ওদের দারুণ সুযোগ ছিল। লিটন ছিল, শান্ত ছিল। ওরা দুইটা ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছে। কিন্তু ওখানে ওরা রান করতে পারেনি।

সেক্ষেত্রে স্বাভাবিক ভাবেই আমাদের এমন পরিকল্পনা নিতে হয়েছে। ওপেনিং খুব গুরুত্বপূর্ণ জায়গা। এখানে ২৪০-২৫০ রান জয়ের মতো স্কোর। এখানে ওরা পারফরম্যান্স করতে পারেনি বলেই আমরা তাদের নিয়ে আসছি।

সৌম্যকে নিচের দিকে ব্যাট করার চিন্তায় আনা হচ্ছে বলে জানান আকরাম, সৌম্যর ব্যাপারটা অতোটা গুরুত্বপূর্ণ না। ইমরুলকে হয়তো আমরা ওপেনিংয়ে খেলাতে পারি। যদি প্রয়োজন হয় সৌম্যকে হয়তো নিচে খেলানো যেতে পারে।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy