খেলাধুলা

মানুষের এই বিশ্বাস শক্তি মাশরাফি

বাংলাদেশ ক্রিকেট দল সর্বপ্রথম বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করে ১৯৯৯ সালে। সেবার এবং তার পরবর্তী বিশ্বকাপ অর্থাৎ ২০০৩ সালে গ্রুপ পর্ব পেরুতে পারেনি বাংলাদেশ। কিন্তু ২০০৭ সালে ভারতকে হারিয়ে বিশ্বকে তাক লাগিয়ে সুপার এইটে উঠেছিল বাংলাদেশ।

bangladesh team asia cup 2018

তারপর দেশের মাটিতে ২০১১ সালে গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়তে হলেও গত বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছিল লাল সবুজের দল। তারপর ইংল্যান্ডে গিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনাল খেলে এসেছে বাংলাদেশ। কদিন আগে শেষ হওয়া এশিয়া কাপের ফাইনালে খেলেছে মাশরাফি বিন মর্তুজার দল। শুধু টুর্নামেন্টগুলোতে নয়, ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশ গত কয়েক বছর ধরে নিয়মিত ভালো খেলছে।

এর ফলেই এখন ক্রিকেটপাড়ায় বিশ্বকাপ জয়ের কথাও উড়ছে। অনেকেই প্রত্যাশা করছেন আগামী বছর ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ওয়ানডে বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হবে বাংলাদেশ। ক্রিকেটাররাও সম্প্রতি এমন কথা বলছেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল অনেক আগ থেকেই বলছেন কথাটা। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানও একই কথা বলে আসছেন। কালও বললেন সাকিব।

বাংলাদেশের যে বিশ্বকাপ জয়ের সামর্থ্য রয়েছে সেটাও প্রমাণ করতে চাইলেন টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। বিশ্বকাপ জয় নিয়ে কথা বলতে গিয়ে সাকিব বলেন, ‘বাংলাদেশের সব মানুষ আশা করছে বাংলাদেশ এবার চ্যাম্পিয়ন হবে। এটা তো শুধু শুধু করছে না। এর আগে তো কোনবার বলে নাই যে আমরা বিশ্বকাপ জিততে পারি। এবার বলছে কারণ তারাও এই জিনিসটা বিশ্বাস করে। এবং আমরা প্লেয়াররাও বিশ্বাস করি। আমি নিশ্চিত বিসিবির সবাইও বিশ্বাস করে যে, এরকম (বিশ্বকাপ জয়) কিছু আমরা করতে পারি।’

মানুষ বিশ্বাস করছে বাংলাদেশ বিশ্বকাপ জিতবে, যেন এটাকেই শক্তি বলতে চাইছেন সাকিব। সাকিব আরও বলেন, ‘আমি মনে করি আমাদের খুব ভালো সম্ভাবনা আছে। বেশ কিছু ভালো দল আছে, আমাদের ধারাবাহিকভাবে ভালো খেলতে হবে। যেহেতু বড় টুর্নামেন্ট। নয়টা ম্যাচ, সেমিফাইনাল পর্যন্ত যাওয়া অনেক কঠিন কাজ হবে। আমার কাছে মনে হয় পরের পার্টটা বরং আরও ইজি। এরপর মাত্র দুইটা ম্যাচ, সেমিফাইনাল ও ফাইনাল। প্রথমে আপনাকে নয়টা ম্যাচ ভাল খেলতে হবে, পরে দুইটা ম্যাচ।’

বাংলাদেশ আসলেই এবারের বিশ্বকাপ জিতবে কিনা সেটা নিশ্চিত হতে আরও আট-নয় মাস অপেক্ষা করতে হবে। তবে বিশ্বকাপের আট মাস আগে সাকিব-তামিমদের এভাবে বলাটা কিন্তু বড্ডই তৃপ্তির।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy