খেলাধুলা

মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে সেজদায় পড়ে গেলেন মিরাজও

 

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে চতুর্থ দিনে চমৎকার একটি সেঞ্চুরি করলেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ৯ বছর পর টেস্ট ক্রিকেটে নিজের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি টি তুলে নিয়েছেন মাত্র ১২২ বলে। জিম্বাবুয়েকে এই ম্যাচ জিততে হলে করতে হবে ৪৪৩ রান। জিম্বাবুয়ের হাতে রয়েছে প্রায় ১২০ ওভার।

সেঞ্চুরি করার পরে ব্যাটসম্যানদের সেজদাহ দেয়ার ঘটনা খুবই নিয়মিত চিত্র। মহান সৃষ্টিকর্তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশের লক্ষ্যেই এমনটা করে থাকেন ক্রিকেটাররা। কিন্তু একজন ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরিতে দুইজনের সেজদাহ দেয়ার ঘটনা নতুনই বটে।

এই নতুন ঘটনার জন্ম দিয়েছেন বাংলাদেশ দলের অফস্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সেঞ্চুরির পরে সেঞ্চুরিয়ানের সাথে সেজদাহ দেন মিরাজও। মিরপুরের গ্যালারিতে উপস্থিত দর্শকদের সামনে নতুন এই নজির স্থাপন করেন দুজন।

জিম্বাবুয়ে ইনিংসের ২৩তম ওভারের শেষ বলে ওপেনার হ্যামিল্টন মাসাকাদজাকে (২৫) মুমিনুলের ক্যাচ বানিয়ে টাইগার শিবিরে স্বস্তি ফেরান অফ স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ। দলীয় ৬৮ রানে প্রথম উইকেট হারালো জিম্বাবুয়ে।

এরপর ২৬ ওভারে বল করতে এসে চতুর্থ বলে আরেক জিম্বাবুইয়ান ওপেনার চারিকে (৪৩) লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে বিদায় করেন বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম। যদিও আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করেছিলেন চারি, কিন্তু থার্ড আম্পায়ারও রিপ্লে দেখে আউটের সিদ্ধান্ত দেন। দিনশেষে জিম্বাবুয়ে ২ উইকেট হারিয়েছে ৭৬ রান সংগ্রহ করেছে।

জিম্বাবুয়েকে ফলো-অনে ফেলে গতকাল ২১৮ রানে এগিয়ে দিন শেষ করে বাংলাদেশ। চতুর্থ দিনে আজ শুরুতেই ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ দল। তবে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ড়ে বাংলাদেশ দল। দলীয় ১০ রানের মাথায় টপ অর্ডার ৩ ব্যাটসম্যানকে হারায় বাংলাদেশ।

ইমরুল কায়েস ৩, লিটন দাস ৬, এবং মমিনুল হক ১ রান করেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন। গত ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরিয়ান মুশফিকুর রহিম ফেরেন দলীয় ২৫ রানের মাথায়। ৭ রান করে আউট হন তিনি। বিপদে পড়া বাংলাদেশ দলের হাল ধরেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ এবং মোহাম্মদ মিঠুন।

৯১ বলে নিজের অভিষেক হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন মোহাম্মদ মিঠুন। এই দুজনের ১৩৮ রানের পার্টনারশিপ ভাঙ্গেন সিকান্দার রাজা। ৬৭ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন মোহাম্মদ মিঠুন। এরপর ৫ রান করেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন আরিফুল হক। ১২২বলে সেঞ্চুরি করে ৯ বছর পর টেস্ট ক্রিকেটে সেঞ্চুরি করলেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। এটি মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের টেস্ট ক্রিকেটের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি।

দ্বিতীয় বাংলাদেশি অধিনায়ক হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে সেঞ্চুরি করেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। আগে বাংলাদেশের হয়ে অধিনায়ক হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে সেঞ্চুরি করেছেন মোহাম্মদ আশরাফুল। শ্রীলংকার বিপক্ষে তিনি করেছিলেন ১০১ রান। ৬ উইকেটে ২২৪ রান ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ। মাহমুদুল্লাহ ১০১ এবং মেহেদি হাসান মিরাজ ২৭ রান করে অপরাজিত থাকেন।

গতকাল মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় টেস্টের তৃতীয় দিনের শুরুতে ব্র্যান্ডন চারি (৫৩) ও ব্র্যান্ডন টেইলরের ব্যাটে চড়ে বড় সংগ্রহের পথে এগিয়ে যায় জিম্বাবুয়ে। পরে টেইলরকে সঙ্গ দেন পিটার মুর (৮৩)।

এই মুরকে আউট করে জুটি ভাঙেন আরিফুল হক। কিছুক্ষণ পর সেঞ্চুরিয়ান টেইলরকে (১১০) বিদায় করে দেন মেহেদি হাসান মিরাজ। এক বল পরেই তার দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফেরেন ব্র্যান্ডন মাভুতা।

দিনের শেষ সেশনের একদম শেষ মুহূর্তে ইনিংসে নিজের পঞ্চম উইকেট তুলে নিয়ে জিম্বাবুয়ের ইনিংস ৩০৪ রানেই থামিয়ে দিয়ে বাংলাদেশকে ২১৮ রানের লিড এনে দেন তাইজুল ইসলাম।

জিম্বাবুয়ের টেন্ডাই চাতারা ইনজুরির কারণে মাঠে নামতে না পারায় ১ উইকেট হাতে রেখেই ইনিংস শেষ করতে হয় জিম্বাবুয়েকে। প্রথম ইনিংসে ব্যাট করছে বাংলাদেশ ৫২২ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে। মুশফিকুর রহিম ২১৯ এবং মমিনুল হক ১৬১ রান করেন।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy