খেলাধুলা

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে বাংলাদেশ দলে নেই তামিম ইকবাল। অনিশ্চিত সাকিব আল হাসান ও

আজই শেষ হল জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে এবং টেস্ট সিরিজ। মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচে বড় জয় পেয়েছে বাংলাদেশ দল। তবে বিশ্রামের কোনো সময় পাচ্ছে না টেস্ট দলে থাকা ক্রিকেট রা। তার কারণ গতকালই পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে এসেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ জাতীয় ক্রিকেট দল।

আগামী ২২ নভেম্বর থেকে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরু হবে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচ। আর এই সিরিজকে সামনে দেখে ইতিমধ্যেই বোর্ডের কাছে চূড়ান্ত এস কোটে জমা দিয়েছেন নির্বাচকরা। তাতে নাম নেই তামিম ইকবালের। সাকিবের বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারনেনি নির্বাচকরা। সুতরাং, তারও প্রথম টেস্টে খেলা প্রায় অনিশ্চিত।

এশিয়া কাপের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হাতের কব্জির ইনজুরিতে পড়ার পর লম্বা সময় বিশ্রাম এবং চিকিৎসার সঙ্গে ছিলেন তামিম। ধারণা করা হচ্ছিল, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টেই ফিরবেন তিনি।

কিন্তু দু’তিনদিন আগে আবারও সাইড স্ট্রেনে ভুগতে শুরু করেন তামিম। যে কারণে আবারও বিলম্বিত হয়ে গেলো তার ফেরার দিণক্ষণ। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে থাকতে পারলেন না তিনি।

অন্যদিকে সাকিব আল হাসান খেলবেন কি খেলবেন না, সেটাও অনিশ্চিত। নীতিগতভাবে নির্বাচকরা চান সাকিবকে দলে নিতে। মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানিয়েছেন, ‘সাকিবের এখন আর শারীরিক কোনো সমস্যা নেই। আমাদের মনে হচ্ছে সে খেলতে পারবে। তবে সাকিব নিজে কিছুটা দ্বিধান্বিত। কারণ, দীর্ঘদিন মাঠের বাইরে।

হঠাৎ করে এসে এই ৬-৭দিনে নিজেকে সে কতটা প্রস্তুত করতে পারবে, তা নিয়ে চিন্তিত সাকিব। এ কারণে সে আরেকটু সময় নিতে চায়। তবে আমরা তার সঙ্গে আরও কথা বলবো। যদি সে বলে খেলবে, তাহলে তাকে রেখেই দল ঘোষণা করা হবে। না হয়, তাকেও প্রথম টেস্টের দলে রাখা হবে না।’

প্রধান নির্বাচক জানিয়েছেন, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট দল থেকে বাদ দেয়া হবে তিনজনকে। তবে কোন তিনজন সেটা জানাননি তিনি। বাইরে থেকে ফেরানো হবে ৩জনকে। ওই তিনজন কারা, সেটার জানার জন্যও অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে সবাইকে।