বিনোদন

‘চায়ের দোকানদার থেকে মোদি প্রধানমন্ত্রী হলে আমার বেলায় হিংসা কেন?’

আসন্ন একাদশ জাতীয় নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করা জন্য মনোনয়ন পত্র কিনেছেন বর্তমান সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বেশ আলোচিত বগুড়ার নায়ক হিরো আলম। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন ফরম কিনেছেন। বগুড়া-৪ আসনের মনোনয়ন চেয়ে দলটির কেন্দ্রীয় কমিটিতে ফরম জমা দিয়েছেন জিরো থেকে হিরো হওয়া এ তারকা।

হিরো আলম নির্বাচনে প্রার্থী হতে মনোনয়ন ফরম কেনার পর থেকে চারদিকে শোরগোল পড়ে যায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এই তারকাকে নিয়ে চলছে বিদ্রুপপূর্ণ আলোচনা-সমালোচনা।

বিদ্রুপ সমালোচনাকে বিন্দুমাত্র আমোলে নিচ্ছেন না হিরো আলম। উল্টো অনুপ্রেরণা হিসেবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উদাহরণ টেনেছেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘চা-এর দোকানদার থেকে নরেন্দ্র মোদি ভারতের মতো একটি বড় দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। আমি সংসদ নির্বাচনে লড়াই করতে চাইলে হিংসা হয় কেন? আমি এদেশের নাগরিক। সুন্দর বাংলাদেশ গড়তে আমিও ভূমিকা রাখতে পারি।’

নিজেকে একজন আন্তর্জাতিক তারকা হিসেবে মনে করেন তিনি জানালেন, ‘ফেসবুকে আমার প্রায় সাড়ে তিন লাখ ফলোয়ার। অথচ আমাকে অনেকে ব্যঙ্গ করছেন।’

নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে হিরো আলম বলেন, ‘হিরো আলম জীবনে কারো কোনো ক্ষতি করেনি। মানুষকে কথা দিয়েছিলাম, আবার নির্বাচনে নামলে জাতীয় সংসদের ভোটে প্রার্থী হব। এ জন্যই মনোনয়ন ফরম কিনেছি। হিরো আলম কাউকে কোন কথা দিলে তা রাখে।’

বগুড়ায় সিডির দোকান দিয়ে ব্যবসা জীবন শুরু করে হিরো আলম। এরপর আসেনে ঢাকায়। শুরু করেন ডিস লাইনের ব্যবসা। পরবর্তীতে নিজের খরচে বেশ কিছু মিউজিক ভিডিও-শর্টফিল্ম। আর এগুলো বানিয়ে ফেসবুক ও ইউটিউবে আপলোড করে। রাতারাতি দেশব্যাপী পরিচিত পান। সুযোগ হয় বাংলা চলচ্চিত্রে অভিনয় করার। এরপর ভারতের বলিউড এবং কলকাতার ছবিতেও ডাক পান।

নিজের জনপ্রিয়তা বাড়ার পর তার এলাকায় মেম্বার প্রার্থী হয়ে একাধিকবার নির্বাচন করেও হেরেছেন যান হিরো আলম। আর এবার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন ফরম কিনেছেন।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy