খেলাধুলা

ভারত বিশ্বকাপে না খেললে লাভ হবে পাকিস্তানের

গেল বৃহস্পতিবার পুলওয়ামার অবন্তীপুরায় তথাকথিত ‘পাকিস্তানের’ ভয়াবহ জঙ্গি হামলায় ৪৪ সেনা নিহত হয়েছে। এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ ঘটনার পর থেকে জম্মু-কাশ্মীরজুড়ে কড়া নিরাপত্তা বিরাজ করছে। কাশ্মীরে এই হামলা পর থেকে পাকিস্তান-ভারতের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। এই হামলার জন্য পাকিস্তানকে দায় করে ভারত। আর হামলার রেশ কাটতে না কাটতেই সোমবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) আবারো বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সঙ্গে সংঘর্ষে মেজরসহ ভারতের চার সেনা নিহত হয়েছেন।

জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় হামলার নজিরবিহীন প্রতিবাদ দেখিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ও ‘৯২ বিশ্বকাপজয়ী দলের অধিনায়ক ইমরান খানসহ একাধিক ক্রিকেটারের ছবি ঢেকে দিয়েছে মুম্বাইয়ের অভিজাত ক্রিকেট ক্লাব অব ইন্ডিয়া (সিসিআই)। মোহালি থেকেও সরিয়ে ফেলা হয়েছে শহীদ আফ্রিদি, ওয়াসিম আকরামসহ একাধিক পাক ক্রিকেটারের ছবি।

শুধু তাই নয়, পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল) সম্প্রচারের দায়িত্বে থাকা আইএমজি-রিলায়েন্সও টুর্নামেন্টটির সম্প্রচার বন্ধ করে দিয়েছে।

এদিকে, ভারতের এসব সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

বিবৃতিতে বলা হয়, এ বিষয়ে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) সঙ্গে কথা বলবে। চলতি মাসের শেষে দুবাইয়ে রয়েছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের সভা। সেখানে এ প্রসঙ্গ তুলে ধরা হবে।

বিষয়টি নিয়ে পিসিবির ম্যানেজিং ডিরেক্টর ওয়াসিম খান বলেন, খেলা ও রাজনীতি আলাদাভাবে দেখা উচিত। ইতিহাস বলছে- খেলার হাত ধরে দুই দেশের মানুষের মধ্যে সমন্বয় স্থাপিত হয়েছে। বিশেষত ক্রিকেটের ক্ষেত্রে।

ওয়াসিম খান আরও বলেন, ইমরান খান ও অন্যান্য কিংবদন্তি ক্রিকেটারের ছবি ঢেকে দেয়া বা সরিয়ে দেয়া দুঃখ প্রকাশ করার মতো কাজ।

এদিকে, দুই দেশের এই উত্তেজনায় প্রভাব পড়তে পারে আসন্ন ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে। এরই মধ্যে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ বয়কটেরও দাবি উঠেছে। সর্বপ্রথম এ দাবি তোলেন সিসিআই সচিব সুরেশ বাফনা। তার এই সুরে তাল মিলিয়েছেন সাবেক ভারতীয় অফস্পিনার হরভজন সিং।

তবে যদি ভারত না খেলে তাহলে লাভবান হবে পাকিস্তান। ৩০ মে থেকে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলসে গড়াবে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ। ক্রিকেটের সূচি অনুয়ায়ী, ১৬ জুন ওল্ড ট্রাফোর্ডে মুখোমুখি হওয়ার কথা পাকিস্তান-ভারত। যদি ভারত অংশ না নেয় তাহলে পূর্ণ ৩ পয়েন্ট পেয়ে যাবে পাকিস্তান। ভারত না খেললে পূর্ণ পয়েন্ট পাবে পাকিস্তান। ২০১৯ বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বের প্রতিটি ম্যাচে ৩ পয়েন্ট বরাদ্দ।

আইসিসির নীতি অনুযায়ী, কোন দল কারও সম্মতি থাকলে যদি তাদের সঙ্গে কোনো দল স্বেচ্ছায় না খেলে তা হলে প্রতিপক্ষরা পূর্ণ পয়েন্ট পাবে। একে বলে ওয়াকওভার।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy