খেলাধুলা

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিচ্ছেন যুবরাজ সিং

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের চিন্তাভাবনা করছেন ভারতের একসময়ের অন্যতম সেরা ওয়ানডে ক্রিকেটার যুবরাজ সিং। বিসিসিয়াইয়ের অনুমতি পেলেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দেবেন ২০১১ বিশ্বকাপে টুর্নামেন্ট সেরা হওয়া যুবরাজ সিং।

সাদা পোশাকের ক্রিকেটে অতটা উজ্জ্বল না থাকলেও লিমিটেড ওভার ক্রিকেটে বেশ দাপিয়ে বেড়িয়েছেন যুবরাজ সিং। ২০১১ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপ জয়ে তো তার অবদান অনেক বেশি। পুরো বিশ্বকাপে অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্সের টুর্নামেন্ট সেরা নির্বাচিত হয়েছিলেন যুবরাজ। তবে এখন আর জাতীয় দলে নিয়মিত নন।

জাতীয় দলে সর্বশেষ খেলেছেন ২০১৭ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার ফেরার সম্ভবনা একবারেই ক্ষীণ। তাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের চিন্তা-ভাবনা করছেন যুবরাজ। মূলত বিভিন্ন টি-টোয়েন্টি লিগ থেকে প্রস্তাব আসছে যুবরাজের কাছে। ভারতের ক্রিকেটের নিয়মে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা কোন খেলোয়াড়ের বিদেশি ফ্র্যাঞ্জাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্টে খেলার নিয়ম নেই।

নিজের বর্তমান বয়স ও ফিটনেসও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার খেলার জন্য উপযুক্ত নয়। তাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্তর জন্য বিসিসিআইয়ের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন যুবরাজ। বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা জানান, “যুবরাজ সিং আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ও ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ও বিসিসিআই থেকে বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট খেলার ব্যাপারে আরও পরিষ্কার হতে চায়। কানাডার গ্লোবাল টি-টোয়েন্টি ও আয়ারল্যান্ডে ইউরো টি-টোয়েন্টি স্ল্যামে খেলার জন্য প্রস্তাব পেয়েছে।”

প্রশ্ন উঠেছে বীরেন্দর শেবাগ ও জহির খান যদি টি-টেন টুর্নামেন্টে অংশ নিতে পারে তাহলে কেন যুবরাজ সিংয়ের অংশগ্রহণে এত প্রশ্ন উঠছে? সেই উত্তরে বিসিসিআইয়ের কর্মকর্তা বলেন,

“টি-টেন টুর্নামেন্ট হয়ত আইসিসির থেকে সবুজ সংকেত পেয়েছে কিন্তু সেটি এখনো জনপ্রিয় লিগ হয়ে উঠেনি। তবে হ্যাঁ, আমরা এই বিষয় নিয়ে ভাবছি।”

ভারতের জাতীয় দলের হয়ে ৪০ টেস্ট , ৩০৪ ওয়ানডে ও ৫৮ টি-টোয়েন্টি খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে যুবরাজ সিংয়ের।