খেলাধুলা

জেনে নিন বিশ্বকাপে কে থাকবে সাব্বির নাকি মোসাদ্দেক

মোসাদ্দেকের হাত ধরে প্রথম ফাইনাল জয় টাইগারদের। তার ঝড়ো ফিফটিতেই ট্রাইনেশনে জয়ের বন্দরে পৌছায় বাংলাদেশ। বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকলেও সম্ভাব্য একাদশে নাম ছিল না মোসাদ্দেকের। হয়তো খেলা হতো না ফাইনালেও। সাকিবের ইনজুরিতে পাওয়া সুযোগ কি অসাধারণভাবেই না কাজে লাগালেন তিনি।

মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত; ধুমকেতুর মতো উজ্জ্বল হয়ে আগমন তার। ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেটে মাঠ কাঁপিয়ে এসেছেন জাতীয় দলে। ফার্স্ট ক্লাসের গড়টাও চোখ কপালে তোলার মতো। ৩৬ ম্যাচে ৬০ গড়ে প্রায় তিন হাজার রান। অনূর্ধ্ব-১৯, লিস্ট এ’তেও দারুন পারফরম্যান্স তার।

২০১৬’তে সৈকতের ওয়ানডে অভিষেক হয়। প্রথম ম্যাচেই আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৪৫ রানের ক্যামিও। দুরন্ত সেই ইনিংসে কার্যকরী এক ফিনিশার পাওয়ার আশা দেখে বাংলাদেশ।

সৈকতের মূল শক্তির জায়গা লম্বা ইনিংস খেলার সামর্থ্য। প্রথম টেস্টেই সেই সামর্থ্যের জানানও দেন। খেলেন ৭৫ রানের চোখ ধাঁধানো এক ইনিংস। ৮ নম্বরে নেমে ওমন ব্যাটিংয়ের পর, চাপে পড়ে যায় টিম ম্যানেজমেন্ট। সৈকতকে লোয়ার অর্ডারে ব্যাট করানোর তীব্র সমালোচনা করে বিশেষজ্ঞরা।

বড় ইনিংস খেলার সামর্থ্য থাকলেও, কম্বিনেশনের কারণে ফিনিশারের ভূমিকায় যেতে হয়েছে সৈকতকে। বল হাতেও কার্যকর তিনি। সেই অলরাউন্ডার সত্ত্বাটি লালনে মাঝে কিছুটা অযত্মের ছাপ পড়ে। ইনজুরি আর ফর্ম হারিয়ে ২০১৭ চ্যাম্পিয়নস ট্রফির পর বাদ পড়েন। প্রায় এক বছর দলে ব্রাত্য ছিলেন।

এই সময়ে আবার ফ্যামিলি স্ক্যান্ডালে চাপে পড়েন মোসাদ্দেক সৈকত। যৌতুক ও নির্যাতনের অভিযোগ তুলে স্ত্রী তার বিরুদ্ধে মামলাও করেন। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেন সৈকত।

ব্যক্তিগত অশান্তি, ফর্মহীনতা, ফিটনেস ফিরে পাওয়ার চ্যালেঞ্জ সবকিছু জয় করে সৈকতের ফিরে আসাটা কঠিন ছিল। সৈকত ফিরেছেন। প্রবল প্রতাপেই ফিরেছেন।

গেল বিপিএলে ফেরার আভাস দিচ্ছিলেন। প্রিমিয়ার লিগে আরো চেনা রূপে ফেরেন মোসাদ্দেক। শেষদিকে আবাহনীর হয়ে বুক চিতিয়ে করা সেঞ্চুরিতে, বিশ্বকাপের ১৫ জনে জায়গা নিশ্চিত হয়ে যায়।

স্কোয়াডে ঠাঁই পেলেও, একাদশ ভাবনায় ঠিক ছিলেন না মোসাদ্দেক। সব হিসেব ওলট-পালট করে দিতে, বড় মঞ্চই বেছে নিলেন ময়মনসিংহের এ প্রতিভা। সৈকতের ২৪ বলে ৫২ রানের ক্যামিওতে, প্রথম কোনো টুর্নামেন্ট ফাইনাল জেতে বাংলাদেশ। সৈকত নির্বাচিত হন ম্যাচ সেরা।

ইতিহাস সৃষ্টি করা ম্যাচ জয়ী ইনিংসের পর একাদশে জায়গা পাওয়ার জোর দাবিদার এখন মোসাদ্দেক। ৭ নম্বরে সাব্বির খেললেও, সুযোগের সদব্যবহার করে ফিনিসারের ভূমিকায় উত্তীর্ণ এই ব্যাটিং জিনিয়াস। মধুর সমস্যার সমাধা